কোভিড-১৯ কে ভয় নয়: নিজে সচেতন হই, অন্যকে বাঁচাই

আমরা কেমন বাঙালি? আমরা কি অজ্ঞ নাকি নিজ গোঁড়ামিতে বলীয়ান? হ্যাঁ! তবে আমরা সমালোচনা আর শো-অফে ওস্তাদ। কখন আমরা মানুষ হবো?

করোনা বা কোভিড-১৯ এক আতঙ্কের নাম। যার কারণে আমরা আমাদের রক্তের সম্পর্ক থেকে ছিটকে পড়েছি। দুনিয়াব্যাপী যেখানে করোনা সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করছে, এবং উন্নত রাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা ভ্যাকসিন তৈরিতে রাত-দিন এক সমান করেছে সেখানে বাংলাদেশের ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করাতে ব্যস্ত। কেউ আছে ধর্ম প্রচারের নামে নিজ দলের আধিখ্যেতা করতে আর কেউ আছে ত্রাণের নামে সেলফি বানিজ্যে। আমরা গবেষণা করছি, বাস ভাড়া কেন বাড়লো? কেউ কেউ আবার ত্রাণ সামগ্রী আত্মসাৎ কিভাবে করা যায় তার কৌশল আবিষ্কারে মত্ত। রাজনৈতিক নেতারা আছেন নেত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণে ব্যস্ত। আর কর্মীরা নেতার তৈলাক্ত সুইমিংপুলে সাঁতারে মগ্ন। সাংবাদিক নয় অথচ নিজেদের সাংবাদিক দাবী করা কিছু ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা আছে তাদের অখাদ্য লেখালেখিতে আতঙ্ক সৃষ্টিতে ব্যস্ত।

আপসোস হয়, আমাদের অজ্ঞতার বহিঃপ্রকাশে যখন দেখি আমরা বিভিন্ন সমালোচনায় ব্যস্ত কিন্তু সচেতনতার নাম বালাই থেকে ইচ্ছাকৃতভাবে অনেক পথ দূরে হাঁটছি।

গতকাল রাতে আমি একটি ভার্চুয়ালে মিটিং এ এ্যাটেন্ড করি। যেখানে ১৮টি দেশের আঠারো জন প্রতিনিধি ছিলাম। প্রত্যেক প্রতিনিধি তারা তাদের দেশের বর্তমান পরিস্থিতি তথা কোভিড-১৯ সম্পর্কে তুলে ধরলো। সবচেয়ে আশ্চর্যের ব্যাপার লক্ষ্য করলাম, তারা তাদের কমিউনিটির অধিভুক্ত প্রতিটা বাড়ির দরজায় গিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করছে, কিন্তু সমালোচনা করা তো দূরের কথা তারা ভাবছি কিভাবে সামাজিক ডিসটেন্স প্রতিষ্ঠা করা যায়। আমি তাদের ফেইসবুক আইডিতে কয়েকবার ঢুঁ মেরে দেখে যা দেখতে পেলাম তাতে খুব অবাক হলাম। তারা ভাবছে, লিখছে, প্রচার করছে কিন্তু দলীয় তেলানি, ত্রাণের নামে সেলফি কিংবা সরকার দলের বদনামে তাদের মাথা ব্যথা নেই। অথচ আমরা আছি সবকিছুতে রাজনৈতিক শো-অফ করতে ব্যস্ত। আমি তাদের কিছুই বলতে পারিনি শুধু বলেছি- অাই এম ইন করাপ্টেড কমিউনিটি। তারপর আমি তাদের যা বলার বললাম। [ আপনারা চাইলেও তাদের আইডিতে ঢুঁ মারতে পারেন Rick Kelly(USA), Susana La Rocca (Argentina), Alejandra Lopez (Mexico), Maria Arpa (UK), Isabel Jara Seguel (Chile), Freddy Ortiz (Pero), Mari Luz Arista (Spain), Alina Gegamova (Russia), Thulane Gxubane (South Africa), Ikramul Shamim (Bangladesh), Ali Gohar (Pakistan), Ram Tiwari (Nepal), Laura Lourdes (Uruguay), Annemeike Wolthuis (Netherland), Borcsa Fellegi (Hungary)]।

যাইহোক, আসুন আমরা সচেতন হই। দল প্রীতির কারণে একে অপরের দোষারোপ না করে মহামারী মোকাবিলা করি। আর করোনা আক্রান্তদের সাথে উঁটকো আচরণ না করে তাদের সাথে সহমর্মি হই। কারণ করোনায় ভয় কিংবা আতঙ্ক নয়। শুধু কয়েকটা আবেগী ভিডিও ক্লিপ আর কিছু ভয়ঙ্কর লেখার কারণে আমরা করোনা আক্রান্তদের ঘৃণার চোখে না দেখে তাদের সাথে ভালো ব্যবহার করে মানসিক সহযোগিতার মাধ্যমে সুস্থ করে তুলি। আপনি আমি বদলে গেলে সমাজ বদলে যাবে, আর সমাজ বদলে গেলে রাষ্ট্র বদলে যাবে। সুতরাং তেল মর্দনে দলপ্রীতি ছেড়ে দেশ প্রেমে নিজেকে উৎসর্গ করি বা করুন।

করোনাকে ভয় নয়, একটু সচেতন হই, নিজে বাঁচি, পরিবার বাঁচাই, কমিউনিটি রক্ষা করি।

ফেসবুক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

89 − 86 =