বদভ্যাস

বাঙলাদেশের মানুষদের কোটি কোটি বদঅভ্যাসের মধ্যে একটি বাজে অভ্যাস হল ভদ্রতা জ্ঞানের অভাব। বাঙালি ব্যক্তিগত জীবনে বিশ্বাসী নয়। অন্যে জীবনের প্রতি তাদের যতটা আগ্রহ, ততোটাই অনাগ্রহী নিজ জীবন নিয়ে কথা শুনতে। বাঙালি নাটকীয়তায় পারদর্শী; মানুষকে জেঁচে জেঁচে রসালো ও মিথ্যে গপ্পো কাহিনী শোনাতে মশগুল। কিন্তু নিজ সম্বন্ধে অপ্রিয় সত্য শুনতে নারাজ।
বাঙালির রক্তে শিরায় শিরায় ভণ্ডামো ও দুর্নীতির চিহ্ন। বাঙালি অন্যের দুর্নীতি নিয়ে সোচ্চার তবে নিজের চুরি ও মানুষ ঠকানো স্বভাব নিয়ে উদাসীন। বাঙালির মেরুদণ্ড খণ্ডিত; মেরুদণ্ড বলতে বাঙালি বোঝে সাময়িক সিদ্ধান্তের ক্ষণস্থায়ী সমাধান। যার ফলে নীতিবোধ তাদের নেই, যা নেই- তা নিয়ে বাঙালি গর্বিত। যা আছে- তা নিয়ে বিরক্তি।
বাঙালি মিথ্যে বলে, প্রচুর মিথ্যে বলে, অনবরত মিথ্যে বলে, মিথ্যে বলতে বলতে ইতিহাস লেখে, মিথ্যে বলায় বাঙালি অদ্বিতীয়। বাঙালির মিথ্যে বলার জন্যে কারণের দরকার পড়ে না বরং শখে বলে, সুখে বলে, কষ্টে বলে, বিনোদন লাভের জন্যে বলে, মানুষকে ছোট করতে বলে, বড় দেখাতে বলে। বাঙালি ভদ্রতা বলতে শুধু বড়দের সম্মান ও শ্রদ্ধা করা বোঝায় আর সম্মান ও শ্রদ্ধা করার অর্থ বলতে তারা চুপ করে থাকাকে বোঝে। তারা জানেই না যে সবাইকে সব প্রশ্ন করতে নেই, সকল মানুষের জীবনের ঘটনাচক্র জানার প্রয়োজন নেই।
যে বাঙালি পুরুষ নিজের স্ত্রীকে পিটায় সেই বাঙালি পুরুষও আবার অন্যের স্ত্রীকে মারধোরের ঘটনা শুনে তীব্র প্রতিবাদে বিপ্লবী সাঁজে। যে বাঙালি নারী নীতি-নৈতিকতার জ্ঞান ছাড়ে, দিন শেষে তিনিও টাকাপয়সাওয়ালা পুরুষকেই বেছে নেয়।
যে নারীবাদী নারী পিতৃতন্ত্র, পুরুষতান্ত্রিক সমাজ ও পুরুষতন্ত্রকে সমালোচনা ও দোষারোপ করে, তিনিও পুরুষের তৈরি নারীদের বন্দি ও গর্দভ বানিয়ে রাখার ছকে ও কৌশলে লিপ্ত হয়ে গালে, ঠোঁটে, চোখে, কপালে, হাতে, পায়ে নানাধরনের প্রসাধনী ও অলংকার ব্যবহার করেই নারীমুক্তির স্বপ্ন দেখে।
বাঙালি সৌন্দর্যবোধ বড্ড বেদনাদায়ক; সাদা বলতে বাঙালি উন্মাদ। আমেরিকা ও ইউরোপের সাদা চামড়া গিলতে পারার সুযোগ নেই বিধায় তারা নিজ গোত্রের সাদা চামড়ায় উজ্জ্বলতা খুঁজে অস্থির। বাঙালি সাদা রঙে গর্ববোধ করে আর বাদামি রঙ নোংরা মনে করে। যার ফলে একবিংশ শতাব্দীর নারীবাদীরাও নিজের ছবি ঘষামাজা করে সাদা ও ফর্সা, এবং উজ্জ্বল বানাতে ব্যতিব্যস্ত।
ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 42 = 45