বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান

বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, তিনি বারবার কোন না কোন একটা ইস্যু নিয়ে সমালোচিত হচ্ছেন,আগের যতটুকু মনে হতো অনিচ্ছাকৃতভাবে তিনি এই কাজগুলো করছেন, কিন্তু গত কালকে যেই পিকটা ভাইরাল হয়েছে এটা তিনি ইচ্ছা করেই করেছেন এটার জন্য হয়তো দুদিন পরে ক্ষমা চাইবে, কারণ মগজে এবং মননে তিনি নিজেও একজন মৌলবাদী এতদিন তার কার্যকলাপে সেটাই প্রমাণ হয় কারণ মোল্লাদের তোষণ করে বারবার নিজে ক্ষমা চেয়েছে লাইভে এসে। যাইহোক এবার আসি মূল প্রসঙ্গে এই ছবির বিষয়ে।

সাকিব আল হাসানের সহধর্মিনীর ছবিতে দেখা যায় গর্ভাবস্থায় শার্ট পড়ে ছবি তুলেছেন সাকিব তার অনাগত সন্তানকে চুমু খাচ্ছেন, এখানে কিন্তু একটা বিষয় থেকেই যায় যেটা হয়তো আমরা অনেকেই বুঝতে পেরেছি অনেকে বুঝতে পারিনি বিষয়টা হয়তো সহজ ভাবেই ধরে নিয়েছি অনেকেই, সাকিব আল হাসানের দুটো মেয়ে আছে এতে হয়তো সাকিব-আল-হাসান তার মেয়েদের প্রতি খুশি না, কারণ তার চাই পুত্র সন্তান, এইজন্য দুটো মেয়ে থাকা সত্ত্বেও তিনি আবারো স্ত্রীকে গর্ভধারণ করতে বাধ্য করেন, আমাদের এই সমাজে নারীদের আমরা মানুষ মনে করি না, আমরা নারীদের বাচ্চা উৎপাদন করার ফ্যাক্টরি আর বিভিন্ন খাবার জিনিসের সাথে তুলনা করি, কলা, চকলেট,তেঁতুল,মাল, সাকিব-আল-হাসান তিনিও ব্যতিক্রম নন তিনিও নারীকে তাই মনে করে নারীরা শুধু ভোগের বস্তু নারীর কোনো চাহিদা ইচ্ছা-অনিচ্ছার কোনো দাম নেই তার কাছে,এজন্য দুটো কন্যা সন্তান থাকা সত্ত্বেও পুত্র সন্তানের জন্য স্ত্রীকে আবারো গর্ভধারণ করতে বাধ্য করেন।

আমাদের এই সমাজে যাদের দেখে মানুষ শিখবে তারা যদি মগজের মৌলবাদী পোষণ করে,তাহলে এই সমাজ কি ভাবে এগিয়ে যাবে? এই দেশের ভবিষ্যত কোথায়, এরকম সেলিব্রেটিদের কাছ থেকে সাধারণ জনগণ কি শিখছে? এই সমাজে নারীরা কিভাবে এগিয়ে যাবে?চারো দিকে শুধু হতাশার অন্ধকার প্রতিচ্ছবি দেখতে পাচ্ছি যেন কোথাও কোন আলো দেখতে পাচ্ছি না। আমাদের দেশের আয়তন অনুযায়ী জনসংখ্যা এমনিতেই অধিক হয়ে গেছে, একটি বা দুটি সন্তানের বেশি নিতে নিষেধ করা হচ্ছে, সেখানেও যদি এরকম সচেতন মহলের নাগরিক হিসেবে যাদের আমরা চিনি তারা যদি এভাবে বছরের পর বছর বাচ্চা জন্ম দিতে থাকে তাহলে সাধারন জনগন খেটে খাওয়া দিনমজুর এরা সচেতন হবে কিভাবে?

বিশ্ব যখন নারী-পুরুষ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে, তখনও আমাদের সমাজে নারীদের মানুষ হিসেবে স্বীকৃতি দিতে নারাজ। 😭

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 72 = 77