মাননীয় বিচারক, আমি চোদনা হয়ে গেলাম

রাজাকার কসাই কাদেরের রায় হইসে। তার যাবজ্জীবন কারাদন্ড হইসে। না, সারাজীবন না। বছর নয়েক কারার ভিত্রে দন্ড বাগায়া বইসা থাইকা কাদের সাব আবার ফিরবেন। সরকারি গাড়িতে চড়বেন। পতপত উড়বে জীর্ণ শীর্ণ জাতীয় পতাকা তার গাড়িতে। পচপচ শব্দে তিনি আবার পাছা মারবেন বাঙ্গালীর। তাগো জোট ক্ষমতায় আসলে অবশ্যি দিনটা আরও আগায়া আসবে।

এক্ষাণ খুন করলে শাস্তি মৃত্যুদন্ড। কিন্তু শয়ে শয়ে হাজারে হাজারে করলে তারেতো আর ছিচকে খুনির পাল্লায় ফেলা যায়না। তাই মহামান্য হরিদাস পাল বিচারক তার রায় দিসেন বাংলালিংক দামে। শত হইলেও গ্রামীনফোন হোলসেলে কোন মনখারাপ হওনের আশংকাতো নাই, কি কন?


রাজাকার কসাই কাদেরের রায় হইসে। তার যাবজ্জীবন কারাদন্ড হইসে। না, সারাজীবন না। বছর নয়েক কারার ভিত্রে দন্ড বাগায়া বইসা থাইকা কাদের সাব আবার ফিরবেন। সরকারি গাড়িতে চড়বেন। পতপত উড়বে জীর্ণ শীর্ণ জাতীয় পতাকা তার গাড়িতে। পচপচ শব্দে তিনি আবার পাছা মারবেন বাঙ্গালীর। তাগো জোট ক্ষমতায় আসলে অবশ্যি দিনটা আরও আগায়া আসবে।

এক্ষাণ খুন করলে শাস্তি মৃত্যুদন্ড। কিন্তু শয়ে শয়ে হাজারে হাজারে করলে তারেতো আর ছিচকে খুনির পাল্লায় ফেলা যায়না। তাই মহামান্য হরিদাস পাল বিচারক তার রায় দিসেন বাংলালিংক দামে। শত হইলেও গ্রামীনফোন হোলসেলে কোন মনখারাপ হওনের আশংকাতো নাই, কি কন?

কিজানি। হয়ত এরমধ্যেই আমি আদালত অবমাননা কইরা ফেলসি। যদিও এই বিচারকের মানের মানে কোন বাল- সেইটা আমার মাথায় ঢুকে নাই। ধর্ষণ তার কাছে সানি লিউনির মত ‘সারপ্রাইজ সেকস’ মনে হয়। আর ২ লক্ষ ধর্ষণ সে ক্ষেত্রে মহাসারপ্রাইজ সেকস হওয়াই সাভাবিক। আর তিরিশ লক্ষ বাঙ্গালী হত্যা নিসন্দেহে বিচারক সাবের বাচ্চার কমপিউটার গেমের চেয়ে সিরিয়াস কিছু না।

প্রচলিত বিচার ব্যবস্থা নিয়ে বঙ্গবন্ধুর যথেষ্ট ক্ষোভ ছিল। তিনি বলছিলেন- এই বিচার ব্যবস্থায় চোরকে ডাকাত বানানর যন্ত্র। যে যত অপরাধী, আমাদের বিচার ব্যবস্থা তাকে আরও বড় অপরাধী বানানর ব্যবস্থা করে দেয়। তাই পাছা পেতে অপেক্ষা করতেছি কসাই কাদের সাহেব আবার ফিরবেন আর নতুন পাকিস্থান প্রতিষ্ঠা করবেন। ইতিহাস হবেন। এরপর কোন দিন যাতে কেউ সাক্ষি দিতে না পারে, সেইরকম ব্যবস্থা করবেন। বাঙ্গালীকে আরেকটি গৌরবজ্জল ইতিহাস উপহার দেবেন। যা নিয়া আমরা খুব গর্ব করব এই বইলা যে- আমরা বাঙ্গালীরা দুইবার মুক্তিযুদ্ধ করছি। প্রথম বার ৩০ লাখ, পরের বার ৬০ লাখ শহিদ হইছি। প্রথমবার ২ লাখ মাবোন ধর্ষণ হইছে, দিতীয়বার ৪ লাখ। এবারের ধর্ষণগুলা- খুনগুলা লাইভ টেলিকাস্ট হবে দিগন্ত টিভির পর্দায়। তাই দেইখা আমগো ট্রাইবুনালের বিচারক ও আমরা হাত মারব।

তাই আমি খুবই খুশি এই রায়ে। খুশিতে বোকাচুদা হয়ে গেছি। আমি আল্লাদে আট আটে চৌষট্টিখানা।

আওয়ামি লিগ জাতির সাথে বেইমানি করায় সবসময়ই বিখ্যাত। জনগনের অর্জন মাত্রই লিগের অর্জন। আর লিগের যত অর্জন সব বাঙ্গালীর পাছা ব্যথা হওয়ার সারপ্রাইজ সেকস। আজ বঙ্গবন্ধু বাইচা থাকলে নির্ঘাত আত্মহত্যা করতেন।

আমি জানি বিচারক সাহেব এই পোষ্ট পড়বেন না। তবু খুব জানতে ইচ্ছে করে- তার মাবোন বা বাপ-ভাই যদি কসাই কাদেরের পৈশাচিকতার শিকার হইত, তিনি কি এই রায় দিতে পারতেন? শুনছি- অন্যায় যে করে আর অন্যায় যে সয় দুইই নাকি সমান অপরাধী। এই বিচারকরে রাজাকার বলা কি খুব অন্যায় হবে? রাজাকারের বাচ্চা না হইলে কেউ জাতির সাথে এই রকম বেইমানী করতে পারে?

আমার কিছু বলার নাই। খালি মনে হয় যদি পারতাম বিচারক সাহেবের সামনে খাড়াইতাম। বলতাম—

“বিশেষ কারনে আমি এতবছর পর আবার অযোধ্যায় এলাম
মাননীয় বিচারক এলাম আমার মায়ের জন্মভুমি খুজতে
না আমার কি ধর্ম আমি জানি না
আমার ইন্তেকালের ভয় নেই,
আখেরাতের লোভ নেই
মঙ্গা বা মৃত্যু আমাকে আকৃষ্ট করে না
শুধু এই ঝোপড়ার জন্যে ,এই জন্মভুমির জন্যে
আমার রোজা আমার উপবাস অস্টপ্রহর প্রাথনা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ
মাননীয় বিচারক , মাননীয় বিচারক রহম করুন
আমার মাতৃভুমি আমাকে ফিরিয়ে দিন
ফিরিয়ে দিন আমি ভয়ংকর হয়ে উঠবার আগেই ।”

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৪ thoughts on “মাননীয় বিচারক, আমি চোদনা হয়ে গেলাম

  1. এই বিচার আওয়ামী লীগ ছাড়া আর
    এই বিচার আওয়ামী লীগ ছাড়া আর কোন সরকার করবে না। আমাদের দায়িত্ব সরকারকে চাপে রাখা, যেন এই বিচার নিয়ে কোন চুদুর বুদুর না চলে। আজকের রায়কে প্রত্যাখ্যান করে বিক্ষোভের মাধ্যমে সরকার এবং ট্রাইব্যুনালকে এটা বুঝিয়ে দিতে হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 40 = 41