হুমায়ুন ফরিদী’কে মনে পড়ে…….

হুমায়ুন ফরিদী

আজ ১৩ই ফেব্রুয়ারী। গত বছর ঠিক এই দিনে আমরা হারিয়েছি আমাদের প্রিয় অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী’কে। শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি এই মহান অভিনয় কারিগরকে। হুমায়ুন ফরিদী’র প্রথম মৃত্যবাষির্কীতে সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত আপনাদের সাথে শেয়ার করে তাকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

জন্ম ও শিক্ষাজীবন

হুমায়ুন ফরিদী

আজ ১৩ই ফেব্রুয়ারী। গত বছর ঠিক এই দিনে আমরা হারিয়েছি আমাদের প্রিয় অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী’কে। শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি এই মহান অভিনয় কারিগরকে। হুমায়ুন ফরিদী’র প্রথম মৃত্যবাষির্কীতে সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত আপনাদের সাথে শেয়ার করে তাকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

জন্ম ও শিক্ষাজীবন
হুমায়ুন ফরীদি ঢাকার নারিন্দায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম এটিএম নূরুল ইসলাম ও মা বেগম ফরিদা ইসলাম। চার ভাই-বোনের মধ্যে তাঁর অবস্থান ছিল দ্বিতীয়। ইউনাইটেড ইসলামিয়া গভর্নমেন্ট হাই স্কুলের ছাত্র ছিলেন তিনি। মাধ্যমিক স্তর উত্তীর্ণের পর চাঁদপুর সরকারী কলেজে পড়াশোনা করেন। এরপর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক (সম্মান) অর্থনীতি বিষয়ে পড়াশোনান্তে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। তিনি আল-বেরুনী হলের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে তিনি বিশিষ্ট নাট্যকার সেলিম আল-দীনের সাথে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রেখেছিলেন।

কর্মজীবন

১৯৭৬ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত নাট্য উৎসবে তিনি অন্যতম সংগঠক ছিলেন। মূলতঃ এ উৎসবের মাধ্যমেই তিনি নাট্যাঙ্গনে পরিচিত মুখ হয়ে উঠেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রাবস্থাতেই তিনি ঢাকা থিয়েটারের সদস্যপদ লাভ করেন।

এরপর তিনি গণমাধ্যমে অনেক নাটকে অভিনয় করেন। ১৯৯০-এর দশকে হুমায়ুন ফরীদি চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। সেখানেও তিনি বিপুল জনপ্রিয়তা লাভ করেন। বলা হয়ে থাকে যে, স্যুটিংস্থলে অভিনেতার তুলনায় দর্শকেরা হুমায়ুন ফরীদির দিকেই আকর্ষিত হতো বেশি। বাংলাদেশের নাট্য ও সিনেমা জগতে তিনি অসাধারণ ও অবিসংবাদিত চরিত্রে অভিনয়ের জন্য স্মরণীয় হয়ে আছেন।

মঞ্চ ও টিভি
অভিনেতা হুমায়ুন ফরীদি বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত বিখ্যাত সংশপ্তক নাটকে ‘কানকাটা রমজান’ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য বিখ্যাত হয়েছিলেন। যে সব নাটকে অভিনয়ের জন্য খ্যাতি লাভ করেন তন্মধ্যেঃ

মঞ্চ

  • কিত্তনখোলা
  • মুন্তাসির ফ্যান্টাসি
  • কিরামত মঙ্গল(১৯৯০)
  • ধূর্ত উই

টিভি

  • নিখোঁজ সংবাদ
  • হঠাৎ একদিন
  • পাথর সময়
  • সংশপ্তক
  • সমূদ্রে গাংচিল
  • কাছের মানুষ
  • মোহনা
  • নীল নকশাল সন্ধানে (১৯৮২)
  • দূরবীন দিয়ে দেখুন (১৯৮২)
  • ভাঙ্গনের শব্দ শুনি (১৯৮৩)
  • কোথাও কেউ নেই
  • সাত আসমানের সিঁড়ি
  • সেতু কাহিনী (১৯৯০)
  • ভবের হাট (২০০৭)
  • শৃঙ্খল (২০১০)
  • জহুরা
  • আবহাওয়ার পূর্বাভাস
  • প্রতিধ্বনি
  • গুপ্তধন
  • সেই চোখ
  • অক্টোপাস
  • বকুলপুর কত দূর
  • মানিক চোর
  • “আমাদের নুরুল হুদা” ৬০ তম পর্ব থেকে।

চলচ্চিত্র জীবন

অভিনীত চলচ্চিত্র ও চরিত্রসমূহ
সন্ত্রাস
দহন
লড়াকু
দিনমজুর
বীর পুরুষ
বিশ্ব প্রেমিক
আজকের হিটলার
দুর্জয়
শাসন
আঞ্জুমান
আনন্দ অশ্রু
মায়ের অধিকার
আসামী বধু
একাত্তরের যীশু – মুক্তিযোদ্ধা
প্রাণের চেয়ে প্রিয় – বিল্লাত আলী
ভালোবাসি তোমাকে
কখনো মেঘ কখনো বৃষ্টি
প্রবেশ নিষেধ
ভণ্ড
অধিকার চাই
মিথ্যার মৃত্যু
বিদ্রোহী চারিদিকে
মনে পড়ে তোমাকে
মাতৃত্ব: The Motherhood
টাকা – আরমান চৌধুরী
ব্যাচেলর
জয়যাত্রা
শ্যামল ছায়া – মুক্তিযোদ্ধা
দূরত্ব
চেহারা
আহা! – কিসলু
কি যাদু করিলা – কামাল চেয়ারম্যান
মেহেরজান – খন্দকার

ব্যক্তিগত জীবন

ব্যক্তিগত জীবনে হুমায়ুন ফরিদী দুবার বিয়ে করেন। প্রথম বিয়ে করেন ১৯৮০’র দশকে। ‘দেবযানী’ নামের তাঁর এক মেয়ে রয়েছে এ সংসারে। পরবর্তীতে বিখ্যাত অভিনেত্রী সুবর্ণা মোস্তফাকে তিনি বিয়ে করলেও তাঁদের মধ্যেকার বিবাহ-বিচ্ছেদ ঘটে ২০০৮ সালে।

পুরস্কার ও স্বীকৃতি

২০০৪ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন হুমায়ুন ফরীদি।
নাট্যাঙ্গনে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠানের ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষে তাঁকে সম্মাননা প্রদান করেন।

মৃত্যুবরণ

তিনি ২০১২ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় মৃত্যুবরন করেন।

সূত্রঃ উকিপিডিয়া

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৯ thoughts on “হুমায়ুন ফরিদী’কে মনে পড়ে…….

  1. হুমায়ূন ফরিদীর মতন গুণী
    হুমায়ূন ফরিদীর মতন গুণী অভিনেতা খুব কমই জন্মেছে বাংলাদেশে। উনার মৃত্যুর তারিখ মনে করে পোস্ট দিয়েছেন এজন্য চন্দ্রবিন্দু আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

  2. স্মরণ করছি শ্রদ্ধার সাথে।
    স্মরণ করছি শ্রদ্ধার সাথে। হুমায়ুন ফরিদী বেঁচে থাকবেন তার কাজের মাধ্যমে আমাদের হৃদয়ে অনন্তকাল। সংসপ্তক’র রমজান, ভাঙ্গনের শব্দ শুনি’র চেয়ারম্যান এর মত অভিনেতা হয়ত আমরা পাবনা, কিন্তু আমাদের অভিনেতাদের প্রেরণা হয়ে থাকবেন হুমায়ুন ফরিদী।

  3. আমার ক্ষুদ্র জীবনে দেখা
    আমার ক্ষুদ্র জীবনে দেখা সবচাইতে শক্তিশালী অভিনেতা।দেখতে দেখতেই এক বছর পেরিয়ে গেলো।চন্দ্রবিন্দুকে ধন্যবাদ তারিখটি মনে করে পোষ্ট দেবার জন্যে।

  4. হুমায়ূন ফরিদী’র মত অভিনেতা
    হুমায়ূন ফরিদী’র মত অভিনেতা অন্যকোন দেশে জন্মালে অস্কার পেত!!
    আমরা এই মেধাকে যথার্থ ব্যবহার করতে পারিনি…
    লেখককে অফুরন্ত ধন্যবাদ :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: :ধইন্যাপাতা: …
    আর হুমায়ূন ফরিদী’কে :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute: :salute:

  5. যখন অভিনয় কি বুঝতাম না তখন
    যখন অভিনয় কি বুঝতাম না তখন থেকে ফরিদী আমার প্রিয় অভিনেতা । অভিনয়ের ক্ষেত্রে সে আমাদের দেশে এক ও অদ্বিতীয় । দুঃখ হয়, এমন শিল্পী কেবল দেশিও পরিমণ্ডলে চিহ্নিত হয়ে থাকলেন অথচ ওনার ক্ষমতা ছিল আন্তর্জাতিক শিল্পী হিসেবে সারা বিশ্ব কাঁপানোর । হাঁয়, এদেশে একজন বিখ্যাত পরিচালক তৈরি হলনা হুমায়ূন ফিরিদী কে তার মেধা অনুযায়ী নির্মাণ করার জন্য ।

    আমার আরেক টি দুঃখ সারাজীবন থাকবে – তার মঞ্চ নাটক দেখতে না পারা ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

6 + 2 =