শিবিরীয় অপপ্রচার, আস্তিক-নাস্তিক প্রশ্ন এবং সাধারণ মানুষ

সাধারণ মানুষ অন্যকে খুব সহজেই বিশ্বাস করতে পছন্দ করে। আর এই বিশ্বাসকে টার্গেট করেই অনলাইন মাঠে নেমেছে জামায়াত শিবির। জামাত শিবির পরিচালিত ফেসবুকভিত্তিক কিছু পেজের অপপ্রচারকে আমলে নিয়ে রাজীব হায়দারের বিচার প্রশ্নে আজ বিভক্ত একদল মানুষ। কিছু পেজ আছে যেগুলো এতদিন অর্ধনগ্ন নারীর ছবি ও সেক্সুয়াল জোকস শেয়ার করত তারা আজ ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত হানার খবর প্রচার করছে। সেইসব পেজের সুক্ষ অপপ্রচারনার পেছনের কারন ধরতে না পেরে শুধুমাত্র ধর্মীয় অনুভুতির কথা ভেবে ধুমাইয়া শেয়ার করছে। বুঝতেও পারছে না, আড়ালে মুখ লুকিয়ে দাঁত কেলিয়ে হাসছে শিবিরের কুপমুন্ডুকরা।


সাধারণ মানুষ অন্যকে খুব সহজেই বিশ্বাস করতে পছন্দ করে। আর এই বিশ্বাসকে টার্গেট করেই অনলাইন মাঠে নেমেছে জামায়াত শিবির। জামাত শিবির পরিচালিত ফেসবুকভিত্তিক কিছু পেজের অপপ্রচারকে আমলে নিয়ে রাজীব হায়দারের বিচার প্রশ্নে আজ বিভক্ত একদল মানুষ। কিছু পেজ আছে যেগুলো এতদিন অর্ধনগ্ন নারীর ছবি ও সেক্সুয়াল জোকস শেয়ার করত তারা আজ ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত হানার খবর প্রচার করছে। সেইসব পেজের সুক্ষ অপপ্রচারনার পেছনের কারন ধরতে না পেরে শুধুমাত্র ধর্মীয় অনুভুতির কথা ভেবে ধুমাইয়া শেয়ার করছে। বুঝতেও পারছে না, আড়ালে মুখ লুকিয়ে দাঁত কেলিয়ে হাসছে শিবিরের কুপমুন্ডুকরা।

মানুষের ধর্মবিশ্বাস পবিত্র। শাহবাগের লাখো জনতা দিনরাত সংগ্রাম করছে তাদের বিরুদ্ধে যারা, সেই পবিত্র বিশ্বাসকে নিয়ে এতদিন ব্যবসা করে, অন্ধ বিশ্বাসকে রাজনৈতিক হাতিয়ার বানিয়ে ফায়দা লোটার চেষ্টা করেছে, গণিমতের মাল বানিয়ে যারা নারীকে ধর্ষন করেছে, বিধর্মী নাম দিয়ে ভিন্নধর্মী, এমনকি স্বধর্মীদেরও হত্যা করেছে। শাহবাগে জনতার সংগ্রাম নরকের কীটদের বিরুদ্ধে, যারা মৃত্যুর পূর্ব মুহুর্তে শেষ হিংস্র নাচ নাচছে।

আমি কানসাট আন্দোলন খুব নিকট দেখেছি। দেখেছি কিভাবে থ্রী নট থ্রী রাইফেল ওয়ালা পুলিশের দিকে বঠি হাতে তেড়ে এসেছে কানসাটের নিরীহ গৃহিনী। দেখেছি সেই সময় জোটগতভাবে ক্ষমতায় থাকা যুদ্ধাপরাধী সংগঠন জামায়াত ইসলামের নিরবতা। দেখেছি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিবিরের মহানবী (সা কে অবমাননা করার মিথ্যে প্রচারনা, পরবর্তীতে নাটকীয় আন্দোলন। সেনা সমর্থিত তত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে আগষ্টের ছাত্র বিদ্রোহও দেখেছি। দেখেছি সেই সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুপ্রবেশ ঘটিয়ে শিবিরের ফায়দা লোটার চেষ্টা। আমরা কিছুদিন আগেই রামুর ঘটনা প্রত্যাক্ষ করেছি। ফেসবুকীয় গুজবে বৌদ্ধ মন্দির ভাঙতেও দেখেছি।

এখন শিবিরের শেষ মুহুর্তের কামড় দেখেছি। দেখছি নিরীহ সাধারণ জনতা কিভাবে তাদেরই হামলায় মৃত্যুর বরণ করছে, একইসাথে মৃত্যুর পর শিবির কর্মীতে রুপান্তরিত হয়েছে। আমরা শুনেছি জাফর মুন্সীর জামায়াত কর্মীতে রুপান্তরিত হওয়ার মিথ্যে গল্প। অনলাইনে পড়ছি ফাসির দাবির নাটক করতে গিয়ে ছাত্র ইউনিয়নের সঞ্জিব চক্রবর্তীর মিথ্যা আহত হওয়া এবং পরবর্তীতে ঢাকা মেডিকেল কলেজে মৃত্যুর মিথ্যা খবর। আমরা জামায়াতিদের মিথ্যে প্রচারনা পূর্বে ধরতে পারলেও বারবার একই ভুল করছি। গুজবে কান দিয়ে আন্দোলন বিভক্ত করার প্রচেষ্টায় কান দিচ্ছি।

আমিও নিরীহ গোছের ছোটখাট অনলাইন এক্টিভিষ্ট। অনলাইনে প্রচারিত জামায়াত শিবিরের কথাগুলো বিশ্বাস করতে খুব ইচ্ছে হয়। হয়তো আপনাদের জায়গায় থাকলে সেটাই বিশ্বাস করতাম। কিন্তু শিবিরের এক্টভিটিজমে পূর্ব অভিঞ্জতা, শাহবাগ আন্দোলনের সাথে সম্পৃক্ততা, অসাম্প্রদায়িক রাজনীতিতে জড়িত থাকা এবং ব্লগ-অনলাইন এক্টিভিটিজমে পূর্ব থেকেই জড়িত থাকার কারনে জানি, আসলে কি ঘটেছে, ঘটছে। অনুমান করতে পারি, কারা এসব করছে।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে এবং ধর্ম ব্যবসাকারী জামায়াত ইসলামকে নিষিদ্ধের দাবিতে টানা দুই সপ্তাহ ধরে জনতার সতস্ফুর্ত অংশগ্রহনে চলতে থাকা আজকের শাহবাগ আন্দোলন আজ গণআন্দোলন হয়ে উঠেছে। এই আন্দোলনের প্রথম শহীদ ব্লগার রাজীব হায়দার শাহবাগের পক্ষে প্রচারনার কারনেই নিহত হয়েছেন। এই হত্যার বিচারের দাবি করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। শিবিরীয় অপপ্রচারকে প্রত্যাখ্যান করে আসুন শাহবাগে। জনতার আন্দোলন সম্পৃক্ত হোন। নতুন প্রজন্মের অহিংস মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিন।

বিজয় আমাদের নিশ্চিত।
জয় বাংলা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৩ thoughts on “শিবিরীয় অপপ্রচার, আস্তিক-নাস্তিক প্রশ্ন এবং সাধারণ মানুষ

  1. শিবিরীয় অপপ্রচারকে

    শিবিরীয় অপপ্রচারকে প্রত্যাখ্যান করে আসুন শাহবাগে। জনতার আন্দোলন সম্পৃক্ত হোন। নতুন প্রজন্মের অহিংস মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিন।

    :থাম্বসআপ:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

4 + 3 =