ভাষার মাসে ফেসবুক আইডি বাংলা করার আহবান

ফেব্রুয়ারী মাস বাঙালীর জন্য একটি ঐতিহ্যবাহী মাস। দাবী আদায়ের মাস, প্রতিবাদের মাস। আর্ন্তজাতিকভাবে বাঙালীর বুক টান করে, মাথা উচু করে গর্বের সাথে নিঃশ্বাস নেওয়ার মাস। ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারী মাতৃভাষার দাবী প্রতিষ্ঠার জন্য বুকের রক্ত ঢেলে দিয়ে বাঙালী যে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে, সমগ্র বিশ্ব শ্রদ্ধার সাথে সেই ইতিহাস স্মরণ করে এই মাসের ২১শে ফেব্রুয়ারীতে ‘আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস’ পালনের মধ্য দিয়ে। বিশ্ববাসী এই দিনে শ্রদ্ধার সাথে বাঙালী জাতির এই অমর ইতিহাস নিয়ে মাতম তুলে। আমাদের শহীদ মিনার হয়ে উঠে বিশ্বের সকল জাতির শ্রদ্ধা জানানোর কেন্দ্র বিন্দু হিসাবে।। বাঙালী জাতি হিসাবে আমাদের কি কোন দায়িত্ব নেই এই দিনে?

এই কথা স্বীকার করতেই হয়, সাম্প্রতিককালে বাংলাভাষার প্রসার ঘটেছে অর্ন্তজালে বাঙালীর দৃপ্ত পদচারণায়। বাংলা হরফ অর্ন্তজালে এখন বিচরণ করছে অবাধে। এটা সম্ভব হয়েছে ফেসবুক আর ব্লগের কারণে। অধিকাংশ বাঙালী ফেসবুক ব্যবহারকারী এখন ফেসবুকে নোট ও স্ট্যাটাস লিখছেন বাংলা হরফে। এই জয় বাংলা ভাষার, এই জয় বাঙালীর। এবারের মহান একুশকে স্মরণীয় করে রাখতে আমরা ইস্টিশনের সম্মানিত সকল যাত্রী, অতিথি, পাঠক ও শুভ্যানুধ্যায়ীদের অনুরোধ জানাচ্ছি ফেসবুক নিকটি একুশের প্রথম প্রহরের প্রারম্ভে বাংলায় রূপান্তর করে নেওয়ার জন্য। পাশাপাশি সকল বাংলা ভাষা ও বর্ণমালাপ্রেমী ফেসবুক ব্যবহারকারীদের প্রতিও আমাদের বিনীত আবেদন থাকবে বাংলা বর্ণমালার প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটান একুশের প্রথম প্রহরের প্রারম্ভে আপনার ফেসবুক নিকটি বাংলা বর্ণমালায় রূপান্তরিত করে। বাঙালীর দুঃখিনী বর্ণমালা এবার জ্বলজ্বল করে উঠবে লক্ষ লক্ষ ফেসবুক ব্যবহারকারীর প্রোফাইলে। যারা ইতিমধ্যে বাংলায় রূপান্তর করেছেন তাদের প্রতি ‘ইস্টিশন’র পক্ষ থেকে একুশের রক্তিম শুভেচ্ছা।

অনেকই ফেসবুকে নিক বাংলা করতে ঝামেলা মনে করেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, কাজটি কোন ঝামেলার নয়। আপনি দুই থেকে তিন মিনিট ব্যয় করেই বাংলা বর্ণমালার প্রতি ভালবাসা দেখাতে পারেন। ফেসবুক নিক বাংলায় রূপান্তর করার একটি সহজ টিউটেরিয়াল নীচে দেওয়া হলঃ

এখানে ক্লিক করলেই খুলবে একটি উইন্ডো। যেটা দেখতে নীচের ছবিটির মত।

ছবি-১

লালবৃত্ত দেওয়া ১, ২ ও ৩ নং ঘর আপনার পছন্দানুযায়ী (১) First name, (২) Middle name, (৩) Last name লিখে পুরণ করুন।

৪) Reason for change এর ঘরে লিখুন “This is my real name.”

উপরের ছবিরধারাবাহিকতায় নীচের ছবিটি দেখুনঃ

“Your ID Upload”- যেখানে আপনার একটি Photo আপলোড করতে বলা হয়েছে, এখানে আপনার নিজের যেকোন একটি ছবি আপলোড করে দিলেই হবে।

এইবার Send বাটনে ক্লিক করুন। আপনার কাজ এখানেই শেষ। কিছুক্ষণের মধ্যেই আপনার ফেসবুক আইডিটি বাংলা বর্ণমালায় রূপান্তরিত হয়ে যাবে। ক্ষেত্র বিশেষে সাথে সাথে নাও হতে পারে। অপেক্ষা করুন……।

এবার একুশের প্রথম প্রহরের পুর্বে আমাদের সবার ফেসবুক নিক হোক বাংলা বর্ণমালার বিজয় গাঁথার দিপ্তীতে উদ্ভাসিত।

সবাইকে ‘ইস্টিশনের পক্ষ থেকে একুশের অগ্রীম শুভেচ্ছা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৫ thoughts on “ভাষার মাসে ফেসবুক আইডি বাংলা করার আহবান

  1. আমি একমত নই। ফেসবুক কোন
    আমি একমত নই। ফেসবুক কোন দেশীয় গন্ডির ভিতরের বিষয় না। এখানে অনেক বন্ধু আছেন যারা বাংলাভাষা বুঝতে পারেন না। আমি কি আরবিতে লেখা নামের একটা বন্ধুকে ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট পাঠাব? কখনোই না, চিনা ভাষায় তাকেও পাঠাব না। ঠিক একই কারনে আমাদের নামটা একজন বিদেশীও পড়তে পারবে না। তাই নামটা ইংরেজীতে থাকলে এমন কোন ক্ষতি দেখছিনা।

    এখন ভাষার প্রতি শ্রদ্ধা দেখাতে যদি বলা হয় আমরা বাংলা ক্যালেন্ডার ব্যবহার করবো, ইংরেজী করবো না। এটা হাস্যকর। তাই বাংলার প্রতি দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে এই ধরনের আবদার আমার কাছে হাস্যকর।

    ফেসবুক শব্দটাও তো ইংলেজী এখন কি একে বাংলা নামে ডাকতে হবে? ক্যাচাল করলে অনেক করা যায়। তবু স্টেশান মাস্টারকে অনুরোধ করবো এই ধরনের প্রস্তাবে আর একটু যেন বিবেচনা খাটান।

  2. আমারটা তো বাংলা ইংরেজি
    আমারটা তো বাংলা ইংরেজি দুটোতেই করা আছে। দুইটাই শো করে। তবে অনেকেই নাম বাংলায় করতে চেয়ে নিয়ম জানতে চেয়েছিলেন আমার কাছে। তাদের কাজে লাগবে। তবে বাংলায় নাম দেখতে কিন্তু ভালই লাগে। ডাইনোসর ভাইয়ের কথাটাও গুরুত্বপুর্ন।

    1. আমার আবার বাংলা প্রীতি একটু
      আমার আবার বাংলা প্রীতি একটু বেশী। আমার ইংরেজী আর বাংলা দুইটাই ছিল। এখন বাংলা করে ফেলেছি। যে ভাষার ইতিহাস এত গৌরবোজ্জ্বল, সেই ভাষাটা একটু সবাই কষ্ট করে দেখুক। তাছাড়া আমি চিরকালের বাঙাল। লুঙি পরতে ভালবাসি। বাসায় আঞ্চলিক টানে কথা বলতে পছন্দ করি। বিভিন্ন ধরনের ভর্তা আমার খুব প্রিয়। গ্রামে হাটাপথে, বড়জোর সাইকেল চালাতে ভাল লাগে। গ্রামের যে বাড়িতে গরুর বিষ্টার গন্ধ নাকে আসেনা সেই বাড়িকে গ্রামের বাড়ি মনে হয় না। বর্ষার দিনে খড় ও মাটি পঁচা গন্ধ আমাকে মাতাল করে। আরো কত কি????? ইস্টিশন মাষ্টারকে ধন্যবাদ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 70 = 76