এই দেশ মুসলমানদের, কেন থাকবে শালার হিন্দু মালাউনরা ?

৪৭ –এ ধর্মের ভিত্তিতে ভারত ও পাকিস্তান নামক দেশের জন্মের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক কাটা কাটির সুচনা হয় । এর মধ্যে অনেকেই ধর্মানুসারে দেশ ত্যাগ করেন , অনেকেই নিজের চৌদ্দগুষ্ঠির ভিটা ছাড়তে চাননি । কেন রে শালারা খুব ভিটা প্রেমিক হইছ না চুদির ভাইরা। ১৯৬৫ সালে আইয়ুব খান সরকার প্রথম একটা ফরমানে ভারতে যাওয়া হিন্দুদের সম্পত্তি শত্রু সম্পত্তি ঘোষনা করেছে । ঠিকই করেছে (বলুন আলহামদুলিল্লাহ ) চুদির ভাই মালাউনরা খুব বাড় বাড়ছিল , কয় এই দেশ নাকি তাদেরও !!!! পাকিস্তান কিভাবে তোদের দেশ হয় ? সব শালা বোকা চোদার দল ।

৭১-এ এর কোন ব্যাত্যয় হয় নি । তবুও শালারা আবার ফিরে এসেছে । কি অসম্ভব কথা , শালারা এই দেশটাকে ভারতের সাহায্যে দুইভাগ করেছে । ২০০১ সালে যখন এক মালাউন মায়ের সেই কথা – “বাবারা এক এক করে আসো আমার মেয়েটা ছোট “। না ভাই এই কথা পড়ে আবেগতাড়িত হবেন না । মুমিনদের আবেগ থাকতে নাই । সুশিলদের মতে- এগুলো বিচ্ছিন্ন ঘটনা বা মিডিয়ার চক্রান্ত । অনেকে একটু ঘুরিয়ে পেচিয়ে বলবেন – কেন ভারতে মুসলমানদের উপর নির্যাতন করছে না ? হ্যা ভাই, এক্কেরে আমার মনের কথাই বলেছেন । তাই আসুন সেই মুসলমান ভাইদের বদলা নেই , ঝেটিয়ে বিদায় করে দিই শালার মালাউনদের । তার আগে একটা স্ট্যাম্পে সই করে নিয়েন কিন্তু, কারন তাদের জমা জমি তো হারাম বা নাজায়েজ নয় তাই না ? শালারা এই দেশে খায় আর ভারতে টাকা পাচার করে, তলে তলে ফন্দি আঁটে । যেদিন আমরা এদেশকে এক্কেরে হিন্দু মুক্ত করতে পারব সেইদিন মিলাদ দিব বলুন আলহামদুলিল্লাহ । অনেকেই বলবেন যারা এসব করে তারা মুসলিম না !!!। এসব কথা বইলেন না । কেন ভাই তারা কি কাফের, তারা কি নাস্তিক ? না না কাফের নাস্তিকরা তো শুধু শাহবাগে থাকে আর কমিউনিস্টরাও অবশ্য নাস্তিক । এরা যদি কাফের ও কাফের বা নাস্তিক হইত তাহলে তো এদেওকে কেউ না কেউ জবাই করে ফেলতো তাকি হয়েছে ? হয় নি কারন এরাই পাক্কা মুমিন তারা একজন কাফেরকে ধরে ধরে মুসলমান বানিয়ে নেকি আদায় করছে । বলুন আলহামদুলিল্লাহ ।

অনেক বাড়ির মালিক আছেন যারা হিন্দুদেরকে বাড়ি ভাড়া দিতে খুবই সাচ্ছন্দ বোধ করেন । কারন এরা ভাড়া টারা নিয়ে কোন রকম টু ট্যা করতে পারে না । এক্কেরে গৃহপালিত প্রানি হয়ে থাকে । সেই বাড়ির পাশে সোনার ছেলেরা সেই হিন্দু মেয়েদের কিভাবে কি করলে আরাম বোধ হবে তার দীর্ঘ বয়ানের কবিতা পাঠের আসর বসায় । আমরা শুধু চেয়ে চেয়ে দেখি কোন প্রতিবাদ করি না । দেখতে ও শুনতে যে ভাল লাগে না তা বুকে হাত দিয়ে বলতে পারব না । শালার মালাউনরা বোরকা না পড়েই ঘুরা ফিরা করে তাহলে তো ওরা ওসব করবেই । তাহলে আমি কেন প্রতিবাদ করব ? আমি মুমিন, আমি যে গনতন্ত্রের ও গনিমতের মালের ধারক ও বাহক । গনতন্ত্রে বাক স্বাধীনতা থাকতে হবে ।

কি কইলেন ? অন্যায় ? কিভাবে অন্যায় ? যারা করছে তারা বুঝবে , আমি তো করছি না । কি কইলেন-অন্যায় যে করে, অন্যায় যে সহে তারা উভয়েই সমান অপরাধী ? দূর মিয়া এগুলা শালার মালাউনদের কথা, কাফেরদের কথায় কোন দাম আছে কি, এককানাও নাই । আবার কি কইলেন ? জোরে কন । মা –ন- ব- তা । দূর মিয়া ওরা মানুষ নাকি ? ওরা তো কাফের ওদেরকে মারা জায়েজ । ওয়াজ শুনেন না হুজুররা সারাদিন ওয়াজ নসিহত করেন ওরা কাফের, কাফের হিন্দুদের গালি দেয়নাই এমন ইসলামী জালসা শুনেছেন বা দেখেছেন ? তাইলে ? যান ক্ষমতা থাকলে হুজুরদেরকে এসব কথা বলুন । কি কইলেন ? বাড়িঘর লুটপাট ও পুড়ানো ? ওটা জিজিয়া কর । শালার মালাউনরা জিজিয়া কর দেয় না । ৯০% মুসলমানদের দেশ কেন জিজিয়া কর দিবে না ? হয় জিজিয়া কর দিবে নতুবা মুসলমান হয়ে মুমিন বান্দা হতে হবে । শালারা কেন শিরক করে ? জানেন না শিরক করা হারাম । এই মালাউনদের বুদ্ধিতেই আমাদের দেশে কি সব মুর্তি তৈরি করেছে এই নাস্তিক সরকার । এদের অত্যাচারে ঈমান রাখাই এখন দায় হয়ে গেছে । শালাদের এই পুজা টুজাতে সরকারকে পুলিশ দিয়ে নিরাপত্তা দিতে হয় তাতেও শালারা বুঝে না যে – এই দেশ তাদের না শুধুই আমাদের । তাইতো সবার কাছে আহবান জানাই আসুন এই শালার মালাউনদেরকে এই দেশ থেকে চিরতরে উচ্ছেদ করে, ধর্ম নিরপেক্ষতার গনতন্ত্র ওদের পুটুর মধ্যে ঢুকিয়ে দিই । এত্ত বড় সাহস ৯০% মুসলমানের দেশে ধর্মনিরপেক্ষ চুদায়, কোন ইসলামিক দেশে গনতন্ত্র আছে ? এই গনতন্ত্র হচ্ছে কাফের দের তৈরি , আমরা তাদের জিনিস মানব কেন ?!! এই ধর্ম নিরপেক্ষ ও গনতন্ত্র হইলে ইসলাম ও মুসলমান মানে আমরাই যে শ্রেষ্ঠ তা কি প্রতিষ্ঠিত হবে ? এই সব কথা শুনলেই আমার মাথায় আগুন জ্বলে উঠে মনে হয় একেক শালার … । ঐসব বাদ দেন আসুন এভাবেই শালাদের উচিত শিক্ষা দেই, ও আমাদের ধর্মের শ্রেষ্ঠত্ব ও মানুষ হিসাবে যে আমরাই একমাত্র আল্লাহর তৈরি তা প্রমান করি । সবাই বলুন আমিন । নারায়ে তাকবির, আল্লাহু আকবার ।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

২৪ thoughts on “এই দেশ মুসলমানদের, কেন থাকবে শালার হিন্দু মালাউনরা ?

  1. কি আর বলবো, দাদাভাই লজ্জা হয়
    কি আর বলবো, দাদাভাই লজ্জা হয় আজ নিজেদের প্রতি। :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: আরে আমিও মানুষ আর আমার হিন্দু প্রতিবেশীও মানুষ। আমার রক্তও লাল তার টাও লাল। তারপরেও যে কিসের এতো ভেদাভেদ সেটা মাথায় আসে না। :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :ভাঙামন: :ভাঙামন:
    আর আপনার লেখার ব্যাপারে নতুন করে কি বলবো। অসাধারন… :গোলাপ: :ফুল: :গোলাপ:

    1. আরে আমিও মানুষ আর আমার হিন্দু

      আরে আমিও মানুষ আর আমার হিন্দু প্রতিবেশীও মানুষ। আমার রক্তও লাল তার টাও লাল। তারপরেও যে কিসের এতো ভেদাভেদ সেটা মাথায় আসে না।

      :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মাথাঠুকি: :মানেকি: :ভাঙামন:

    2. দিদি ভাই, নিজের লজ্জা থেকেই
      দিদি ভাই, নিজের লজ্জা থেকেই এইরকম লেখার অবতারনা । যখন আমরা অসুখে পরি তখন আমরা হিন্দু মুসলমান ডাক্তার দেখি না । তাহলে রক্তের কথা মনে রাখই কিভাবে । তবুও ভাল লাগলো আপনি কষ্ট করে পড়েছেন সেজন্য ধন্যবাদ ।

    3. দিদি ভাই, নিজের লজ্জা থেকেই
      দিদি ভাই, নিজের লজ্জা থেকেই এইরকম লেখার অবতারনা । যখন আমরা অসুখে পরি তখন আমরা হিন্দু মুসলমান ডাক্তার দেখি না । তাহলে রক্তের কথা মনে রাখই কিভাবে । তবুও ভাল লাগলো আপনি কষ্ট করে পড়েছেন সেজন্য ধন্যবাদ ।

  2. সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ
    সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ নামের দেশটি স্বাধীন হয়েছিল ধর্মনিরেপক্ষতার ভিত্তিতে, ধর্মের ভিত্তিতে নয়। ধর্মের ভিত্তিতে ৪৭-এ যে দেশগুলো স্বাধীন হয়েছিল তার নাম ভারত ও পাকিস্তান। এটাই হচ্ছে মুল কথা।

    1. সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ

      সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ নামের দেশটি স্বাধীন হয়েছিল ধর্মনিরেপক্ষতার ভিত্তিতে, ধর্মের ভিত্তিতে নয়। ধর্মের ভিত্তিতে ৪৭-এ যে দেশগুলো স্বাধীন হয়েছিল তার নাম ভারত ও পাকিস্তান।

      চমৎকার বলেছেন দুলাল ভাই… :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :থাম্বসআপ: :বুখেআয়বাবুল:

    2. সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ

      সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ নামের দেশটি স্বাধীন হয়েছিল ধর্মনিরেপক্ষতার ভিত্তিতে, ধর্মের ভিত্তিতে নয়। ধর্মের ভিত্তিতে ৪৭-এ যে দেশগুলো স্বাধীন হয়েছিল তার নাম ভারত ও পাকিস্তান। এটাই হচ্ছে মুল কথা। –

      অভ্যাস কি এত তাড়াতাড়ি যায় ? সেই সাথে অর্থনৈতিক সুবিধা !! সেই মুসলিম্লীগের ভুত ৭১-৭৫ পর্যন্ত কোন রকম অজ্ঞান অবস্থায় ছিল তারপরে এত দিন তার পালন পাওলনের ফলে আজ এই অবস্থা বলেই আমার বিশ্বাস । ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য ।

    3. সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ

      সব মানুষের অংশগ্রহনে বাংলাদেশ নামের দেশটি স্বাধীন হয়েছিল ধর্মনিরেপক্ষতার ভিত্তিতে, ধর্মের ভিত্তিতে নয়। ধর্মের ভিত্তিতে ৪৭-এ যে দেশগুলো স্বাধীন হয়েছিল তার নাম ভারত ও পাকিস্তান। এটাই হচ্ছে মুল কথা। –

      এত তাড়া তাড়ি পাকি ও মুসলিম লীগের চিন্তা চেতনা নষ্ট হয় ? তার উপর ৭৫এর পর থেকে তা লালন পালন করা হয়েছে সংগে আছে অর্থনৈতিক সুবিধা । ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য ।

    4. আপনি হয়তো জানেন না যে ধর্মের
      আপনি হয়তো জানেন না যে ধর্মের ভিত্তিতে 1947 এ পাকিস্থান আলাদা হয়েছিল ভারত থেকে। গান্ধীজির তীব্র আপত্তি ছিলো এই বিভাজনে। কিন্তু মুসলীমলীগ নেতা মহঃ আলী জিন্নার সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার হাত থেকে মুক্তির উপায় না পেয়ে ভারতের কংগ্রেস দল এই বিভাজনে সম্মতি দেন। পূর্ব পাকিস্থান আজ স্বাধীন বাংলাদেশ কিন্ত আপনি কি বলতে পারেন নাম ছাড়া আর কিছু পরিবর্তন হয়েছে পূর্ব পাকিস্থানের ? কারন এই এলাকাই তো 1947 এ ধর্মের ভিত্তিতে ভারত থেকে আলাদা হয়েছে।

  3. আমি হিন্দু বলেই দুর্বল,
    আমি হিন্দু বলেই দুর্বল, মুর্খ, পলায়নপ্রবর, এবং স্বার্থপর। এই কারনে পালীয়ে যেতে হবে প্রিয় স্বদেশ ছেড়ে।
    অবস্থা এমন দড়িয়েছে যে, আর হয়ত ৩০ থাকে ৪০ বছর পর বাঙালি হিন্দু জাদুঘরে দেখতে পাওয়া যাবে।

  4. অবস্থা এমন দড়িয়েছে যে, আর হয়ত

    অবস্থা এমন দড়িয়েছে যে, আর হয়ত ৩০ থাকে ৪০ বছর পর বাঙালি হিন্দু জাদুঘরে দেখতে পাওয়া যাবে। –

    কোন দেশের যাদুঘরে ? বাংলাদেশের ? না ভাই হিন্দুদের কথা পৌরানিক কাহিনী হিসাবে থাকবে ।

  5. নিজের দেশে কী যদি আশ্রিতার মত
    নিজের দেশে কী যদি আশ্রিতার মত থাকে তাহলে আছে হিন্দুরা।। কোথাও যদি বৌদ্ধ ধর্মের মানুষের উপর হামলা হয় তাহলে পেপারে আর টিভিতে আসে বৌদ্ধ ধর্মালম্বীদের উপর হামলা কিন্তু হিন্দুদের উপর হামলা হলে সরাসরি সংখ্যালঘু বলে কেনো ……।??

  6. একেলা পথের পথিক ভাই,
    কি

    একেলা পথের পথিক ভাই,

    কি দরকার ভালো মানুষ সেজে থেকে নিজের পায়ে নিজে কুড়াল মারার !! আমার মতো মনহীন দানব হয়ে যান দেখবেন জীবন কত সুন্দর..

    সবাই কি সবার মত হতে পারে ? ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

5 + 1 =