জয় মাহমুদুর!!

জয় মাহমুদুর !! এক মাহমুদুরের কারনে আজ শাহবাগে নামাজ পড়া হয়, কোরান তিলাওয়াত হয় ,মোমবাতি জালানো বন্ধ হয় ।এক মাহমুদুরের কারনে জনসভা করে বলতে হয় আমরা আস্তিক আমরা মুসলমান।এই মাহমুদুর এর কারনে নাস্তিকরা ও বনে যায় আস্তিক! এক মাহমুদুরের কারনে সরকার সংবাদ সম্মেলন করে বলতে বাধ্য হয় আমরা ধর্ম বিরোধী নয় আমরা সার্টিফিকেট প্রাপ্ত খোদাভিরু ইসলামী সরকার।মাহমুদুরের কারনে অলস মন্ত্রীরা ও কষ্ট করে নতুন করে আইন বই অধ্যয়ন করতে হয়।এই মাহমুদুরের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে বাকী মন্ত্রীদের ডেকে শাসানোর ও প্রয়োজন পড়ে।এই মাহমুদুরের কারনে কত লোক মিছিল করে,কত সাংবাদিক আহত হয়, কত লোক পুলিশ পেটায়,কত পুলিশ মানুষ কে পেটায়,কত ভাঙ্গাচোরা হয়,কত লোক মারে আবার কত লোক যে মরে ।এক মাহমুদুরের কারনে….
আমি ও লিখতে বাধ্য হই ব্লগ,ফেইসবুকে কিংবা সংবাদ পত্রে ।জয় মাহমুদুর!!

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

১০ thoughts on “জয় মাহমুদুর!!

  1. জয় মাহমুদুর!!!!!
    এই শ্লোগান

    জয় মাহমুদুর!!!!!
    এই শ্লোগান বদলে ফেলুন। শ্লোগান হতে পারে “মাহমুদুর জিন্দাবাদ”। মোমবাতি জ্বালানো যদি হিন্দুয়ানী হয়ে থাকে তবে ‘জয় বাংলা’র মত ‘জয় মাহমুদুর’ও আওয়ামীপন্থী, ভারতপন্থী শ্লোগান বলে অভিযোগ উঠতে পারে। মহান ‘ধার্মিক!’ মাহমুদুর সাহেবের ধর্মানুভূতিতে আঘাত লাগতে পারে।

    1. মাহমুদুর সাহেবের

      মাহমুদুর সাহেবের ধর্মানুভূতিতে আঘাত লাগতে পারে।

      মাহমুদুর রহমানের ধর্মীয় অনুভুতিটা ঠিক কোন জায়গায়? :আমিকিন্তুচুপচাপ:

  2. আর কিছু না। মাহমুদুর রহমান
    আর কিছু না। মাহমুদুর রহমান লোকটা মানসিকভাবে অসুস্থ বলেই আমার মনে হয়। আর একটি কথা। তাকে দেখলে কিন্তু বিবর্তনবাদ পড়তে হয় না। :p

  3. সেটা খোঁজার দরকার কি? উনি এই
    সেটা খোঁজার দরকার কি? উনি এই বঙ্গদেশে ইসলামের “ত্রানকর্তা!!!” কারনে অকারনে ওনার “ধর্মানুভূতি”তে আঘাত লাগতেই পারে। ওনার অনুভূতিতে আঘাত লাগা মানে সবার অনুভূতিতে আঘাত লাগা। তাই ওনার “ধর্মানুভূতি” রক্ষার্থে দরকার হলে হরতাল ডাকবো, গ্রেনেড ধরবো। তবুও ওনার অনুভূতির একবিন্দুও ক্ষয় হতে দেবোনা।

  4. অনেকে জানতে চেয়েছেন এই
    অনেকে জানতে চেয়েছেন এই বক্তব্যটা মাহমুদুরের পক্ষ না বিপক্ষে? এই বক্তব্য কারো পক্ষে বা বিপক্ষে নয়।এই বক্তব্য নিজের প্রতি নিজের ধিক্কার।ধিক্কার এই জন্য যে দেশের জন্য লাখ লাখ লোক জীবন দিল,লাখ লাখ মা বোন ইজ্জত দিল আর আমাদের মত লাখ লাখ দেশ প্রেমিকরা ও , ওর মত একটা কুকুর কে ও মূল্যায়ন করে হচ্ছে, সমীহ করতে হচ্ছে ।তাই আক্ষেপেই বলছি জয় চুদুবুদুর রহমান ।

  5. সংগ্রাম পত্রিকার চেয়ে পচাৎদেশ
    সংগ্রাম পত্রিকার চেয়ে পচাৎদেশ পত্রিকার ধর্মীয় দরদ বেশি। গু আজমের চেয়ে চুদির রহমান বেশি ধার্মীক।

    ফলাফল বিম্পি একটা ব্রেক থো দিতে পেরেছে। কিন্তু খেলাটা হাত ছাড়া হয়নি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 47 = 49