ভারতে বাংলাদেশ বিরোধী প্রচারণা জোরদার

মোদি সরকার ক্ষমতায় আসার সঙ্গে সঙ্গেই ভারতে বাংলাদেশ বিরোধী প্রচারণা জোরদার করা হয়েছে। অনলাইনেও তার ছাপ পড়ছে। ২৯ এপ্রিল ফেসবুকে খোলা হয়েছে একটি পেইজ। নাম তার ”ভারত আমার প্রাণ, ভারতবিরোধীরা হুশিয়ার সাবধান”। গোটা বিশেক দিন পার হতে না হতেই এই পেইজে এখন ১ হাজার ৪৩২ সদস্য। অনবরত এর সদস্য সংখ্যা বাড়ছে! এর মধ্যেই ১ হাজার ৩১৩ জন এই পেইজটি নিয়ে আলোচনা করেছেন।


এ ধরণের ছবি প্রকাশ করা হচ্ছে পেইজটিতে।

পেইজটিতে ভারতকে প্রাণ বলে ভারত বিরোধীদের হুশিয়ার করা হয়েছে। কাজে কর্মে দেখা যাচ্ছে, এটা বাংলাদেশ বিদ্বেষী মোদি ভক্তদের একটা প্রোপাগান্ডা সেল। নানা নামে ফেইক আইডি খুলে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কুৎসা রতানো হচ্ছে এখানে। বিপরীতে উত্তেজিত বাংলাদেশী তরুণেরাও ওই পেইজের বিরুদ্ধে রিপোর্ট করছেন। অনেকেই পেইজে গিয়ে গালাগালিও করে আসছেন।

পেইজটিতে ধর্মকেই বেশি গুরুত্ব দিয়ে প্রচারণা চালানো হচ্ছে! গতকাল একটি পোস্ট দিয়ে পেইজটিতে বলা হয়েছে, ”ভারতের কোনো ধর্ষণ হলে বাংলাদেশের মুসলিমরা হিন্দুদের গালি দেয়। আমি এর কারণ বুঝি না। আচ্ছা, ভারতের যত ধর্ষণ হয় সবই কি হিন্দুরা করে? মোটেও তা নয়। সংখ্যাগত দিক থেকে বিচার করলে দেখা যাবে যে, ভারতের বেশিরভাগ ধর্ষণ করে মুসলিমরা। ওয়েষ্ট বেঙ্গলের যত গুলো ধর্ষণ কাণ্ড হয়েছে তার বেশিরভাগ আসামি মুসলিম। বাকি রাজ্যগুলোর কথা তো বাদই দিলাম। শুধু তাই নয়। চুরি, ডাকাতি, তোলাবাজী, লুণ্ঠণ, খুন, রাহাজানি বেশিরভাগ কাণ্ডের আসামি মুসলিম। তাহলে শুধুমাত্র হিন্দুদের ধর্ষক তকমা দেওয়া হবে কেনো? হিন্দুরাই কেনো গালি খাবে? মুসলিমরা দোষ করে কেনো পার পাবে?”
জবাবে বাংলাদেশের মুসলিমরা খুব করে গালাগালি করেছেন পোস্টদাতাকে।


২০ মে এই ছবিটি শেয়ার দিয়ে পেইজ থেকে বলা হয়, ”এই দেখ কাঙালাদেশিরা এটা হলো আমাদের ফারাক্কা বাঁধ।গ্রীষ্ম কালে অটকে দেব মরভূমি হয়ে যাবি আর বর্ষা কালে খুলে দেব ভেসে যাবি।যবনের বাচ্চা ভারত বিরোধীতা ছাড় নইলে আগামীতে কঠোর আঘাত আসছে।”

গতকালের আরেকটি পোস্টে বাংলাদেশ সম্পর্কে পেইজটিতে লেখা হয়েছে-
”আসুন দেখে নিন বাংলাদেশিদের গর্ব করা কিছু তথ্য:
১) বাংলাদেশে শিক্ষার হার ৪৫%।
২) দারিদ্রসীমার নিচে বাসকরে ৩৮% মানুষ।
৩) রাষ্ট্রীয় ভাষা গালিমিশ্রিত বাংলার বিকৃত ভাষা।
৪) দেশের রাজধানী ঢাকা বিশ্বের সবচেয়ে অযোগ্য বসবাসের শহর।
৫) প্রধান পেশা গরু চুরি ও ভিক্ষা করা।
৬) ৯৯% শিশু পরিবারিক ধর্ষণের শিকার।
৭) প্রধান খাদ্য খিঁচুড়ি।
৮) একমাত্র দেশ যেখানে বৌ কেনাবেচা হয়।
৯) ২৮% মানুষ এইডস আক্রান্ত।
১০) হরতালের দেশ হিসাবে জগৎ বিখ্যাত।
বাংলাদেশ সমন্ধে আরও এমন অজানা তথ্য জানতে লাইক দিয়ে একটিভ থাকুন।”

এর বিপরীতে আবদুল্লাহ আল মারুফ নামক একজন বলেছেন, ”০১✔ ইন্ডিয়া শুধু আয়তনেই বিশাল বড় দেশ। ০২✔ ৫০% রেও বেশি লোক দারিদ্র সীমার নিচে বাস করে। ০৩✔ দেশের বেশির ভাগ(৯০%)মানুষখোলা আকাশের নিচে টয়লেট করে। ০৪✔ ইন্ডিয়াকে বিশ্বের টয়লেটবলা হয়। ০৫✔ইন্ডিয়াতে প্রতি চারটি নারী ভ্রূণেরমধ্যে একটি নষ্ট করে ফেলা হয়। ০৬✔ধর্ষণের স্বর্গ বলা হয় এই ইন্ডিয়াকেই। ০৭✔ এই দেশের মেয়েরা তাদেরবাবা- ভাইয়েরকাছে ও নিরপদ নয়।০৮✔ নারীরা নির্যাতিত হয় ঘরে ঘরে। ০৯✔ নারীর নূন্যতম অধিকারটুকু নেই ইন্ডিয়াতে। ১০✔ এমন কি পর্যটকের জন্য ও বিশ্বের সবচেয়ে অনিরাপদ দেশ ইন্ডিয়া। ১১✔এইদেশ কুসংস্কার আর ধর্মীয়গোড়ামীতে জর্জরিত। ১২✔ সাম্প্রদায়িক তার দাঙ্গার জন্য বিখ্যাত এইদেশ। ১৩✔ বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পাগল ওই ইন্ডিয়াতেই আছে। তাই ইন্ডিয়াকে বিশ্বের পাগলা গারদবললে ও ভুলহবে না। ১৪✔ইন্ডিয়াতে পতিতা বৃত্তিতে কোন বাধা নেই। ১৫✔ সানি লিয়নের মতএকটা পর্নস্টারকে সম্মাননা দিয়েছে ইন্ডিয়া। ১৬✔ দেহ ব্যবসায় ওইন্ডিয়া বিখ্যাত। ১৭✔ইন্ডিয়া একটা স্বৈরাচারী দেশ। ১৮✔এত বড় দেশ হওয়া সত্ত্বে ও এরা অন্ যদেশকে দখল করতে চায়। ১৯✔ প্রতি বেশী দেশ গুলোর উপর জোর খাটিয়ে অত্যাচার করে। ২০✔ সমকামিতায় ইন্ডিয়াই বিখ্যাত হতে যাচ্ছে।”


১৯ মে এই ছবিটি শেয়ার দিয়ে বলা হয়, ”বেনাপোলের পুটখালী সীমান্তের বিপরীতে ভারতের আঙরাইল সীমান্তে সোমবার ভোররাতে সিরাজুল ইসলাম নামে বাংলাদেশি এক গরু চোরকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। রাত ১ টার দিকে অবৈধভাবে গরু চুরি করে পালাচ্ছিল। আর তখনই জারজটি ধরা পড়ে যায় এরপরই আমাদের দেশপ্রেমিক বিএসএফ ভাইয়েরা যা করার করে দিয়েছে। এই দেশপ্রেমিকদের জন্য কয়টা লাইক হবে?”

এভাবেই ধর্ম ও জাতীয়তাবাদকে কেন্দ্র করে বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। পেইজটিতে মোদির অনেক ছবি ও তার পক্ষে অনেক শ্লোগান দেখা গেছে। সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উচিত দ্রুত এ বিষয়টি ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে জানানো এবং এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

ফেসবুক মন্তব্য
শেয়ার করুনঃ

৯ thoughts on “ভারতে বাংলাদেশ বিরোধী প্রচারণা জোরদার

  1. আপ্নে ঐ পেজটারে ব্লগে
    আপ্নে ঐ পেজটারে ব্লগে ল্যাদাইছেন ক্যান?
    আপনি কি ঐ পেজের বিজ্ঞাপন দিতে নামছেন মিয়া?
    ঐ পেজের এডমিনের মারে আমি ……
    আমরা বাংলাদেশীরাও ভারত পুন্দানমন্ত্রী মোদীরে ঠাপাইতে পারি।আর আপনে পেজের লিঙ্ক ব্লগে দিছেন তাতে মনে হৈতাছে ঐ পেজের প্রচারনার কাজ আপ্নের হাতে।
    ইস্টিশন মাস্টারের কাছে অনুরোধ রৈল এই যে,ইস্টিশন মাস্টার উক্ত লেখকের আইপি চেক কৈরা দ্যাখেন লোকটা ভারতী না বঙ্গদেশী।

    1. আপনি তো আপাদমস্তকই একটা নগ্ন
      আপনি তো আপাদমস্তকই একটা নগ্ন বিজ্ঞাপন! এই বিষয় নিয়ে আলাপের গুরুত্বটা টের পাচ্ছেন না? উদ্ভট!

    2. আপনের কথায় প্রমাণ পাইল যে
      আপনের কথায় প্রমাণ পাইল যে আপ্লে এই পেজের বিজ্ঞাপন ল্যাদিয়েছেন।জ্যাঠাই মহাশয় কেতু কেতু দিলেই দোষ।

    3. আপনি কি ঐ পেজের বিজ্ঞাপন দিতে

      আপনি কি ঐ পেজের বিজ্ঞাপন দিতে নামছেন মিয়া?

      কানা কে কানা বলিও না,
      বলিলে কানা মনে খুব দুঃখ পায়।

  2. সেভেন সিস্টারে দশ ট্রাক
    সেভেন সিস্টারে দশ ট্রাক অস্ত্র স্বাধীনতাকামী উলফাসহ সকল বিপ্লবীদের মধ্যে ডিস্ট্রিবিউট করে দিলেই হবে। মৌদির লম্পজম্প দেখবেন বন্ধ হয়ে যাবে।

    1. সেভেন সিস্টারে দশ ট্রাক

      সেভেন সিস্টারে দশ ট্রাক অস্ত্র স্বাধীনতাকামী উলফাসহ সকল বিপ্লবীদের মধ্যে ডিস্ট্রিবিউট করে দিলেই হবে। মৌদির লম্পজম্প দেখবেন বন্ধ হয়ে যাবে।

      ভোট দিয়া আগামী বার বি এন পি রে ক্ষমতায় আইনেন,
      আশা করা যায়, আপনার মনোবাঞ্ছা পূরণ হইবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

30 − = 29