Posted in কবিতা

সেল্ফি কোথায়?

এ যুগে কেউ ঈশ্বর পায়না দাবি করলেও আওয়াজ উঠবে, সেল্ফি কোথায়? ঈশ্বরের সাথে দেখা হয়েছে এমন কথা এখন কেউই মানবেনা। দিতে হবে প্রমান তাও অকাট্য, অন্তত ঈশ্বরের সাথে তোলা একটি চমৎকার সেল্ফি। সবাই চাইবে ঈশ্বরের ফেসবুক একাউন্ট হতে চাইবে বন্ধু ঈশ্বরের- নাস্তিকের দল হয়তো করবে ফলো, আবদার করতো সবাই আগে…

বিস্তারিত পড়ুন... সেল্ফি কোথায়?
Posted in কবিতা

‘পর্দার আড়ালে’

ঈশ্বর রাখালদের দেখা দিয়েছেন বারেবার, যাতে তারা পশুর পালের মত চরিয়ে নিতে পারে মানুষ, বাঁধতে পারে দড়ি অপার সম্ভাবনার। ঈশ্বর খুব চালাক, তিনি কোন চিত্রকরকে দেননি দেখা কোন চিত্রকরও দাবি করেননি অবতারত্বের, যদি ঈশ্বর আবির্ভূত হতেন চিত্রকরের সামনে, তাহলে ঈশ্বরের আসল চেহারা সেই চিত্রকর হুবহু এঁকে ফেলতো, ঈশ্বর রহস্যময়, তিনি…

বিস্তারিত পড়ুন... ‘পর্দার আড়ালে’
Posted in কবিতা

কে আছে?

যে পাখি উড়তে নারাজ তার চেয়ে অলস আর কে আছে? পাখাকে যে চাদর বানিয়ে মুড়িয়ে নিয়ে আরামে থাকে, তার চেয়ে নির্বোধ আর কে আছে? ভর দুপুরে যে ঘুঘু না ডেকে ঘুমায় বাঙ্গালী কোন গৃহিণীর মত, তার চেয়ে কুঁড়ে আর কে আছে? মায়াবী সন্ধ্যায় যে প্রেমিক অপেক্ষা করেনি তার প্রিয়ার জন্য,…

বিস্তারিত পড়ুন... কে আছে?
Posted in গল্প

‘সেদিন কবিগুরুর সাথে দেখা হয়েছিলো’

সাজিদ একদিকে দাঁড়িয়ে চা খাচ্ছিলো। আজ পাবলিক হলে প্রচুর মানুষ। রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে একটা প্রোগ্রাম হচ্ছে। স্টেজে গান হচ্ছে। শিশুতোষ গান। কবিগুরু শিশুদের জন্য ভালো গান লিখেছেন। এই গান এখন বড়রাও শুনে। আচ্ছা রবীন্দ্রনাথ বড়দের নিয়ে যেসব গান লিখেছেন তা কি শিশুদের নাগাল থেকে দূরে রাখতে হবে। সাজিদ চায়ে চুমুক দেয়ার…

বিস্তারিত পড়ুন... ‘সেদিন কবিগুরুর সাথে দেখা হয়েছিলো’
Posted in অনুগল্প সাহিত্য

পাদুকা সংগীত

কক্সবাজার বেড়াতে গিয়ে দেখলাম বিচে হাঁটার জন্য আমার স্যান্ডেল জোড়া খুব একটা উপযুক্ত না। পাশের মার্কেট থেকে এক জোড়া রাবারের স্যান্ডেল কিনলাম। খুব পছন্দ হলো জিনিসটা। দেখতে হুবহু চামড়ার স্যান্ডেলের মত। স্যান্ডেলের ব্যাপারে ভেজিটেরিয়ান হয়ে গেলাম। রাবারতো উদ্ভিদজাত বস্তু। চামড়া যেহেতু প্রানীজ তাই এই ক্ষেত্রে চামড়ার স্যান্ডেলকে নন-ভেজই বলা চলে।…

বিস্তারিত পড়ুন... পাদুকা সংগীত
Posted in গল্প

“ব্যাক ফায়ার”

মাওলানা রশিদউদ্দিন তর্কবাগীশ পানটা মুখে পুরেই টিভিতে চোখ রাখলেন। তার মেজাজ অত্যাধিক খারাপ। মেজাজ খারাপ হলে তিনি প্রচুর পান খান। তখন হাল্কা ধূমপানও করেন। তিনি টিভির দিকে চোখ রেখেই একটা বেন্সন ধরালেন। টিভিতে জংগী অভিযান দেখানো হচ্ছে। নামটা তিনি ঠিক বুঝে উঠতে পারছেন না। ইংরেজি নাম। বাংলাদেশের অভিযানের নাম হবে…

বিস্তারিত পড়ুন... “ব্যাক ফায়ার”
Posted in কবিতা

‘চৈতালি সাধনা’

চৈতালি বাতাসে ভাসে প্রভাতের বৃষ্টির গন্ধ, ঝিরিঝিরি হাওয়া, কিশোরীর কানের দুলের মত ঝুলে মুকুলিত আম, পত্রহীন বৃক্ষেও জাগে আশা, হয় রোদ্দুর পাওয়া। শহরে কাকেরাই সংখ্যাগুরু তবুও ওরা চায়নি পাখিরাজ হতে, সবুজে সবুজে উড়েও ওরা সুখী। হায়! কাক আজ সন্ন্যাসী মনে হয়! কালো রঙ নিয়েও কত উজ্জ্বল তারা, সেই উজ্জ্বলতায় মেঘও…

বিস্তারিত পড়ুন... ‘চৈতালি সাধনা’
Posted in গল্প

“উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে”

বড় রাস্তার মোড়ে এসে শিবুর বুকটা ধক করে উঠলো। এত জনমানবশূন্য আগে কখনোই দেখেনি এই জায়গা। এক পাশে পুলিশের বড় একটা ভ্যান দাঁড়িয়ে আছে। ভেতরে সুসজ্জিত অনেক পুলিশ। বাইরে ওয়্যারলেস হাতে এক অফিসার কাকে কী যেন বলছে। শিবু হাতের ডানের বড় মন্দিরটার দিকে তাকালো। পুলিশ ঘেরা দিয়ে রেখেছে। মানুষের হাত…

বিস্তারিত পড়ুন... “উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাড়ে”
Posted in গল্প

পরশ পাথর

ইদানিং কে যেন কানের কাছে কথা বলে। হারু পাগলা এখন প্রায়ই কানের মধ্যে কী যেন শুনতে পায়। কে যেন তার কানের কাছে এসে বিড়বিড় করে কথা বলে। গত কয়েক বছর তার মধ্যে একটা পরিবর্তন এসেছে। আগে সে চোর ছিল। মসজিদ থেকে জুতা চুরি করতো। যখন সবাই সেজদায় যেত হারু চোরা…

বিস্তারিত পড়ুন... পরশ পাথর
Posted in গল্প

নিঃসংগ শয়তান

নতুন চশমাটা ভালো করে দেখে আবার চোখে দিলো আজাজিল। বয়স কম হয়নি। তাই এখন মাঝেমাঝে চশমা লাগে। মানুষ পৃথিবীতে এত ঝামেলা করছে যে তার এখন আর তেমন কিছু করতে হয়না। অনেক অবসর সময় পাওয়া যাচ্ছে। তবে কাজ ছাড়া সে থাকতে পারেনা। আজকে কী মনে করে যেন কোরান শরীফ খুলে বসলো।…

বিস্তারিত পড়ুন... নিঃসংগ শয়তান