Posted in কবিতা

বিদায় হে ভুল প্রেম

বিদায় হে ভুল প্রেম,বিদায় তোমাকে আহা!তোমার গলায় যে মিথ্যার অলংকার ঝোলানো থাকে তা আর আমাকে আকৃষ্ট করবেনা কোন দিন বিদায় হে প্রাণঘাতী শত্রু আমার,আমি আজ শত্রুবিহীন তুমি এক হিংসুক বালক যার কাছ থেকে শ্রদ্ধা ও বিনয় পেয়ে এসেছি এতদিন,তুমি সাধুবেশে পাকা চোর অতিশয় হঠাৎ সত্য ভেবে তোমার যে পথে গেছি…

বিস্তারিত পড়ুন... বিদায় হে ভুল প্রেম
Posted in কবিতা

পুরোহিত

আমি পুরোহিত,জেগে আছি ছায়ার মতন এ মন্দির রত্নশোভিত,আলো আধারীর খেলা সর্বক্ষণ আলিঙ্গন করে রাখে একে,রাত্রির ডানার মত পরিব্যাপ্ত নিঃস্তব্ধতা খেলা করে অবিরত এর কারুকাজময় বুকে,আমি জেগে থাকি নিঃসঙ্গ, একাকী আমি পুরোহিত,আমার দুঃস্বপ্নের স্মৃতি সদাই জাজ্বল্যমান মন্দিরের ফলকে ফলকে,এতে খোদাই করা রয়েছে অভিশাপ প্রস্ফুটিত হীরার মত কেন তুমি এলে রক্তবর্ণ বিশির্ণ…

বিস্তারিত পড়ুন... পুরোহিত
Posted in কবিতা

অবসাদগ্রস্থ সম্রাট

আমি যেন একঘেয়ে কোন এক বৃষ্টিদগ্ধ রাজ্যের সম্রাট এখনো জোয়ান তবু বলহীন,বয়স যেন ষাট হয়ে আছে,মন আমার বিষাদিত,চারদিকে শুধু অবসাদ দানা বাধে,এ জীবনে নেই কোন মধু গুরুদের অতিভক্তি আমি দেখিনা প্রশংসার চোখে তাদের মহা মূল্যবান বাণী মনে রাখিনা,বিবেকে বাধেনা একটুকু,আমি আমার দিনগুলেকে খুন করতে চাই একঘেয়ে শিকারী কুকুরদের সাথে,গুনগুন গান…

বিস্তারিত পড়ুন... অবসাদগ্রস্থ সম্রাট
Posted in কবিতা

জল্পনা কল্পনা

তুমি কি বুঝবে আমার সমস্ত কল্পনা এ খুব নীরব দিনগুলো,যে রক্ত অবিরত করছে আনাগোনা কেমন তা শীতল হয়ে উঠে যখনি ভাবি নীরবে তার কথা,প্রহরে প্রহরে কান পেতে শুনি তার পায়ের শব্দে এ অন্দর বুঝি মুখর হয়ে উঠে সখী,তুমি কি দেখেছো কখনো তার ঠোটে ফুটে উঠে যে হাসির রেখা,যেন তা জীবন…

বিস্তারিত পড়ুন... জল্পনা কল্পনা
Posted in কবিতা

কেউ কিছু বলতে পারেনা

কেউ কিছু বলতে পারেনা ঐ যে আকাশ করে ছলনা তার রূপ ক্রমশ বিলীন হয়ে আসে ফুলে আর গন্ধ নেই,রঙ নেই আর ঘাসে ঘাসে পাখির গলায় আর সুর নেই যেন কেউ কিছু বলতে পারেনা কেন! ক্রমশ মুমূর্ষু হয়ে আসে প্রেমিকার স্নিগ্ধ কন্ঠস্বর ঝড়ে আর বেগ নেই,যেন প্রেম নেই বুকের ভেতর শব্দগুলো…

বিস্তারিত পড়ুন... কেউ কিছু বলতে পারেনা
Posted in কবিতা

উদাসীন গোলাপ

গোলাপ,জাননা তুমি,যেই রক্ত বুকে ধরে আছি সেই রক্ত তোমা বুকে আকা,কাছাকাছি যত নম্র ফুলের দোকানে যাও দেখবে গোলাপের গায়ে এ কবির রক্ত ফুটে আছে কি নিদারুণ আশ্রয়ে গোলাপ জাননা তুমি, কতদিন প্রেম নিবেদনে তোমাকে উপহার দিতে গিয়ে বলি দিতে হবে উজ্জ্বল কড়কড়ে রক্ত আমার হে গোলাপ,উদাসীন গোলাপ, তুমি তো কিছুই…

বিস্তারিত পড়ুন... উদাসীন গোলাপ
Posted in কবিতা

আমাকে গ্রহণ করো হে শহর

আমাকে গ্রহণ করো হে শহর আমি এক আতঙ্কময় ম্যাজিশিয়ান, এ বদ্ধ ঘর, জমজমাট ধুলোর আঘাত বুকে নিয়ে আমি ঘুরে বেড়াই তোমার পাজর থেকে পাজরে,অযথা কারণ ছাড়াই শত বাসনাকে সংগোপনে আগলে রাখতে চাই তারা তবু ভেসে বেড়ায় সবখানে নাটাই বিহীন ঘুড়ির মত সদর্পে,কখনো উদাসীন তরুণীর কেশের বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে পরে,শতকন্ঠে গান…

বিস্তারিত পড়ুন... আমাকে গ্রহণ করো হে শহর
Posted in কবিতা

এ শহর

এ শহর পঙ্গু ভিক্ষুকের সাথে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে হাটে রাত্রির শরীরে এটে থাকা চাঁদের ললাটে চুমো খায়,ফুলের দোকান থেকে ফুল চুরি করে মানুষকে বিলায় নিত্যদিন সাহেব বাজারে,জুড়ে দেয় অটোর স্লোগান মর্জি মাফিক,খসে পড়া প্লাস্টারের গন্ধে ভরে উঠে, তার্কিক ভার্সিটির মাস্টারের কাছে হাত পাতে নিয়ম করে রোজ রাজনৈতিক বক্তা হয়ে মাঝে মাঝে…

বিস্তারিত পড়ুন... এ শহর
Posted in কবিতা

শূণ্যতা ও আমি

আমি অবিরাম শূণ্যতাকে খামচে ধরে থাকি পৃথিবী পালটায় রঙ গিরগিটির মতন প্রতিক্ষণ,একাকী আমার ভাবনাগুলো প্রজাপতির ডানায়,পাখির কণ্ঠস্বরে নদীর কলতানে,রোদ্রের উষ্ণতায়, বইয়ের অক্ষরে মলিন কবিতার খাতায়,ভবঘুরে পথিকের চোখের ভাষায় ফুলের রঙিন শরীর থেকে চুইয়ে চুইয়ে পরে নম্র আশায় ক্রমাগত শূণ্যতার ভাড়ার থেকে মদ তুলে আনি আর মদির তৃষ্ণার আন্দোলনে বিদ্রোহী হয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন... শূণ্যতা ও আমি
Posted in কবিতা

মুক্তো কুড়োবার আশায়

একলা ঘরে শিশুর মত আলো আধারীর দুলনায় দুলছি প্রজাপতি হয়ে মন রঙ বেরঙের ফুলে উড়ে বেরাচ্ছে আমার সৌভাগ্যে ঈর্ষান্বিত চাঁদ গোল হয়ে জ্বলে যাচ্ছে তারাদের মাংসল শরীর থেকে থেকে রাগে কেপে উঠছে বাতাসের আংগুলগুলো চুল টেনে ধরছে অবিরত ওরা দস্যু হয়ে আমাকে বধ করতে সদা প্রস্তুত আর আমি সুখ কল্পনার…

বিস্তারিত পড়ুন... মুক্তো কুড়োবার আশায়