Posted in কবিতা

ভজনালয়ে প্রভু নাই

কবিতাঃ ভজনালয়ে প্রভু নাই মিঠুন রাজ মন্দিরে মসজিদে কত অর্থের ছড়াছড়ি ওহে বিত্তশালী ঈমানদার মহা পুণ্যকারী, চক্ষু খুলিয়া দেখো কত আদম সন্তান মাথার উপরে নাই কোন ছাউনি আছে বিশাল এক উন্মুক্ত আসমান; ওরা নাহি পায় খানা নাহি পায় পানি। জান্নাত-স্বর্গ পাইবার অভিলাষে মোল্লা পুরুতের পকেট ভরিছো জড়ের মুখে ভোগ ঠেলিছো,…

বিস্তারিত পড়ুন... ভজনালয়ে প্রভু নাই
Posted in কবিতা

“মা সমাচার”

আমার কবিতাঃ “মা সমাচার” মিঠুন রাজ গিন্নিবিবি বসে আছে মুখটি কালো করে সকালবেলা সেই যে গেল- সাঁঝ গড়িয়ে রাত্রী হলো আহাম্মকটা আসছে নাতো ফিরে। কলিংবেলের শব্দ পেয়ে কাজের মেয়ে দৌড়ে গিয়ে দরজা খুলে দিলো- এতবেলা পরে বুঝি আসার সময় হলো? ও এসেছে বুঝতে পেরে গিন্নী এসে বলে- ‘সারাবেলা কোথায় ছিলে,…

বিস্তারিত পড়ুন... “মা সমাচার”
Posted in কবিতা

কবিতাঃ হাট

হাট মিঠুন রাজ সকাল থেকে বউ বকছে যেতেই হবে হাটে থলি হাতে গুজে দিয়ে- থালা বাটি সঙ্গে নিয়ে চলল পুকুর ঘাটে। নুন মরিচ ফুরিয়ে গেছে আগের শনিবার তেলের বোতল নিতে হবে বলেছে বারবার। বউকে ডাকি ও বিবিজান তেলের বোতল কই? বাঁচলে টাকা আনবো কিনে রাজাপুরের দই। বউ এসে ঝামটা মেরে…

বিস্তারিত পড়ুন... কবিতাঃ হাট
Posted in ধর্ম-অধর্ম

ধর্মবিকৃতি থেকে নাস্তিকতাঃ(২য় পর্ব)

আমি যদি বলি যে আমার বাবা অত্যন্ত ধার্মিক তাহলে আমার বাবার সমন্ধে আপনাদের মনে কি চিত্র ফুটে উঠতে পারে? আমার বাবার মুখভর্তি সাদা দাড়ি,গায়ে ইয়াবড় জোব্বা,মাথায় পাগড়ী, চুলে মেহেদী,হাতে তসবিহ,বগলে জায়নামাজওয়ালা একজন জবুথবু ব্যক্তি মোটকথা সিনেমার দরবেশ এর মতো তাই নয় কি? আসলে কি এটাই ধার্মিকের ইউনিফর্ম? এই বৈশিষ্টের ধার্মিক…

বিস্তারিত পড়ুন... ধর্মবিকৃতি থেকে নাস্তিকতাঃ(২য় পর্ব)
Posted in ধর্ম-অধর্ম

ইজতেমা ফ্যাক্ট

বিশ্ব ইজতেমায় বিশ্বের ৬৫ টি দেশের হাজার হাজার অত্যন্ত ধর্মপ্রাণ মুসুল্লীরা আসেন অনেক কষ্ট করে। আবার দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলসহ সব আনাচেকানাচের মুরুব্বিরা প্রচণ্ড শীত উপেক্ষা করে, রাস্তার ঝক্কিঝামেলা পেরিয়ে কত যন্ত্রনা সহ্য করে তারপর উপস্থিত হয় টংগীর তুরাগ নদীর তীরে। উদ্দেশ্য নামাজ কালাম পড়ে, দোয়াদরুদ পড়ে অসীম সওয়াব অর্জন করে…

বিস্তারিত পড়ুন... ইজতেমা ফ্যাক্ট
Posted in ধর্ম-অধর্ম

ওয়াজশিল্প!

সূচনাঃ শ’য়ে শ’য়ে হাজারে হাজারে মানুষ অসীম সওয়াবের আশায় শীতের রাত্রী উপেক্ষা করে কোন এক বিশেষ জায়গায় একত্রিত হয়ে সারারাত জেগে খানিক কেঁদে খানিক হেসে নির্দিষ্ট কিছু শিল্পীর শিল্পকলা শুনে সকালে যেই লাউ সেই কদু হওয়াকেই ওয়াজশিল্প বলা হয়। কোকিলকণ্ঠ,নাদুসনুদুস চেহারা,বেশভূষা,সুন্দর বাচনভঙ্গি,মানুষকে মুহুর্তে হাসানো-কাদানো,মানুষের পকেট থেকে টাকা বের করে আনা,ভুলিয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন... ওয়াজশিল্প!