১৮৮: মক্কা বিজয়-২: আবু সুফিয়ানের সমঝোতার প্রচেষ্টা!

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” আদি উৎসের বিশিষ্ট মুসলিম ঐতিহাসিকদের বর্ণনায় যা আমরা নিশ্চিতরূপে জানি, তা হলো, যে সহিংস ঘটনাটিকে অজুহাত হিসাবে ব্যাবহার করে স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) মক্কা আক্রমণ ও বিজয় সম্পন্ন করেছিলেন, তার কারণ হলো…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮৭: মক্কা বিজয়-১: আক্রমণের অজুহাত!

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” হিজরি ৮ সালের জুমাদি-উল আওয়াল মাসে (আগস্ট-সেপ্টেম্বর, ৬২৯ সাল) স্বঘোষিত নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) তাঁর যে অনুসারীদের সিরিয়া অভিযানে পাঠিয়েছিলেনে, মুতা নামক স্থানে এসে তারা কিরূপে চরম বিপর্যস্ত ও পরাজিত অবস্থায় পলায়ন করেছিলেন, তার…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮৬: মুতার যুদ্ধ-৩: নবীর মোজেজা – পরাজয় ও পলায়ন!

Posted in দর্শন মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” ইসলাম বিশ্বাসী পণ্ডিত ও অপণ্ডিতরা ‘মুতা যুদ্ধের’ আলোচনা কালে যে ঘটনা-টি প্রায় সব ক্ষেত্রেই উদ্ধৃত করেন তা হলো, এই যুদ্ধের প্রাক্কালে স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর এক “মোজেজা (অলৌকিকত্ব) প্রদর্শন।” নবী মুহাম্মদের…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮৫: মুতার যুদ্ধ-২: জাফর বিন আবু-তালিব খুন!

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” প্রাণী জগতে সম্ভবত: মানুষই হলো একমাত্র জীব, যারা তাঁদের কল্পিত ঈশ্বরের অজুহাত উত্থাপন করে কিংবা না করে দাবী করেন, “তাঁরাই সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব (আশরাফুল মখলুকাত)!” এই দাবীর সবচেয়ে বড় দুর্বলতা এই যে: যারা এই…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮৪: মুতার যুদ্ধ -১: কে ছিল আক্রমণকারী?

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” ওহুদ যুদ্ধের চরম পরাজয়, আল-রাজী ও বীর মাউনায় অনুসারীদের হত্যা, খন্দক যুদ্ধের চরম বিপর্যয় ও হুদাইবিয়াই অবমাননাকর সন্ধি-চুক্তি স্বাক্ষরের পর হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) এর সংঘাতময় ঘটনাবহুল নবী জীবনের পরবর্তী বিপর্যস্ত ও বিষাদময় ঘটনাটি হলো…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮৩: নবী মুহাম্মদের সন্ত্রাস: অনুসারীদের অনীহা!

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” ‘কুরআন’ ও ইসলামের ইতিহাসের সবচেয়ে আদি উৎসের মুসলিম ঐতিহাসিকদেরই লিখিত ‘সিরাত ও হাদিস’ গ্রন্থের পর্যালোচনায় আমরা জানতে পারি, অনুসারীদের প্রতি মুহাম্মদের সর্বশেষ চূড়ান্ত নির্দেশ এই যে: “যতক্ষণ পর্যন্ত না সমস্ত পৃথিবীতে ‘ইসলাম’ ও তাঁর…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮২: নবী মুহাম্মদের সন্ত্রাস: উৎসাহ-প্রলোভন ও হুমকি!

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” ‘কুরআন’ ও আদি উৎসের বিশিষ্ট মুসলিম ঐতিহাসিকদেরই বর্ণনায় যা আমরা সু-নিশ্চিতরূপে জানি, তা হলো, স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) তাঁর মদিনায় অবস্থানকালীন সময়ে (৬২২-৬৩২ সাল) পার্থিব গণিমত, জান্নাতের প্রলোভন, প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ হুমকি-শাসানী…

বিস্তারিত পড়ুন...

১৮১: মুহাম্মদ (সা:) এর সন্ত্রাস: নির্দেশ প্রদান!

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” আদি উৎসের বিশিষ্ট মুসলিম ঐতিহাসিকদেরই বর্ণনায় আমরা জানতে পারি, মক্কায় অবস্থানকালীন সময়ে স্বঘোষিত আখেরি নবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) যখন তাঁর ধর্ম-প্রচার শুরু করেছিলেন, কুরাইশরা তাঁর সেই প্রচারণায় কোনরূপ প্রতিবাদ ও প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন নাই।…

বিস্তারিত পড়ুন...

পর্ব-১৮০: নবী মুহাম্মদের সাফল্যের চাবি: ঘৃণা-ত্রাস-প্রলোভন! (দুই)

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” আমাদের চারিপাশের এক অতি সাধারণ প্রামাণিক চাক্ষুষ দৃশ্য এই যে, ‘প্রাতিষ্ঠানিক ধর্ম-বিশ্বাস’ হলো এমন একটি বিষয়, যা প্রায় সমস্ত ক্ষেত্রেই পারিবারিক সূত্রে প্রাপ্ত ও বংশ-বংশানুক্রমে সংক্রামিত একটি অবস্থান। স্বাভাবিক পরিবেশ ও পরিস্থিতিতে ধর্মান্তরিতের সংখ্যা…

বিস্তারিত পড়ুন...

পর্ব-১৭৯: নবী মুহাম্মদের সাফল্যের চাবি: ঘৃণা-ত্রাস-প্রলোভন! (এক)

Posted in দর্শন ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

“যে মুহাম্মদ (সাঃ) কে জানে সে ইসলাম জানে, যে তাঁকে জানে না সে ইসলাম জানে না।” বিশিষ্ট মুহাম্মদ অনুসারী খালিদ বিন আল-ওয়ালিদ কী কারণ ও পরিস্থিতিতে ইসলাম গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন; কার চিঠি প্রাপ্তির পর তাঁর এই আকাঙ্ক্ষা বৃদ্ধি পেয়েছিল; সিদ্ধান্তের পর মক্কা থেকে মদিনায় হিজরত করার প্রাক্কালে তিনি উসমান বিন…

বিস্তারিত পড়ুন...