Posted in অনুকাব্য

নিপা পারভীন আমি সেই অনু হবো

আমি সেই ঘুড়ি হবো তোমায় উড়িয়ে নিজেই ছিড়েঁ যাবো। আমি সেই গাছ হবো তোমায় ছায়া দিয়ে নিজেই মরে যাবো। আমি সেই বাশেঁর সাকো হবো তোমায় পার করে নিজেই ভেঙ্গে যাবো। আমি সেই পানি হবো তোমায় তৃষ্ণার্ত মিটিয়ে নিজেই মিশে যাবো। আমি সেই সূর্য হবো তোমায় আলো করে নিজেই সন্ধ্যায় ডুবে…

বিস্তারিত পড়ুন... নিপা পারভীন আমি সেই অনু হবো
Posted in অনুগল্প

তুমি খেয়েছো

প্রিয় নিপা পারভীন, , তোমার একটু অবহেলা আমাকে যতটা কষ্ট দেবে, ঠিক ততটা কষ্ট সাত কোটিবার যন্ত্রণাময় মৃত্যুতেও হবে না আমার। তোমার একটু মন খারাপ আমাকে যতটা বিষণ্ণ করে তোলে, ঠিক ততটা বিষণ্ণতা মেঘজমা আকাশেও জমে না কখনো। তোমার একটু নীরবতা আমাকে যতটা নিথর করে দেয়, ঠিক ততটা নিথর পৃথিবীর…

বিস্তারিত পড়ুন... তুমি খেয়েছো
Posted in অনুগল্প

গরের রানী নিপা পারভীন

আধুলি, ‘সময়’ একজীবনে আমাকে শুধু ‌তোমার পিঠই দেখালো, মুখ দেখালো না কখনো। তাইতো সারাজীবন ধরে রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া একটি দুটি আধুলি পকেটে ভরেই সময়ের মুখ দেখার জুয়া খেলার টেবিলে বসে পড়ি এক আনাড়ি জুয়ারীর মতো। অপরিচিত নির্বোধের মুখোশ পরে আমি বারবার হেরে যাই সেই জুয়ায়, -শুধু একটি আস্ত নোটের অভাবে।…

বিস্তারিত পড়ুন... গরের রানী নিপা পারভীন
Posted in অনুকাব্য

-নিপা পারভীন, তুমি থাকো আমার বুক পকেটে-

জীবনে প্রেম থাকলে বিরহ আসবেই। প্রেম আর বিরহ জ্যামিতীয় আকারে বিদ্যমান। আমার সুস্থ সুন্দর জীবনে বিরহ কখনো ৯০ ডিগ্রি বাঁকে, আবার কখনো বা ১৮০ ডিগ্রি বাঁকে আমাকে ঘূর্ণিঝড়ের মতো তছনছ করে দেবে। এতেই যদি আমি নিঃশেষ হয়ে যাই, তাহলে আমার জীবন ওখানেই থেমে যাবে নিপা। প্রতিটি মানুষের পাহাড় কিংবা সমুদ্র,…

বিস্তারিত পড়ুন... -নিপা পারভীন, তুমি থাকো আমার বুক পকেটে-
Posted in অনুগল্প

-জানালার এক পাশ ভেঙেছিলে আমাকে দেখার জন্য-

সকাল ৮:০১ টার সময় মেসেজ সকাল ৮:০১ টার সময় সিন সকাল ৮:০১ টায় উত্তর। এই রকম হয় নাকি? হ্যাঁ হয়, সর্ম্পক যখন শুরু হয়।   সকাল ৮:০১ টার সময় মেসেজ দুপুর  ১২:৩৪ টার সময় সিন রাত  ০১:২২ টায় টার উত্তর। এই রকম হয় নাকি? হ্যাঁ হয়, সর্ম্পক যখন পুরনো হয়…

বিস্তারিত পড়ুন... -জানালার এক পাশ ভেঙেছিলে আমাকে দেখার জন্য-
Posted in অনুকাব্য

অভাবি সংসার-০২

প্রিয়তমা নিপা পারভীন, জাগো সুন্দরী পারাবতী, চলে এসো ঘর ছেড়ে আমার পাহাড়েরর ঘরে। দেখো, শীত নেই আর, ক্ষান্ত হয়েছ মেঘের ধারাবষণ। ফুলে ফুলে চেয়ে গিয়েছে ঘরের চারপাশ, এসেছে পাখিদের কাকলিমুখর দিন। সারা পাহাড় ভরে শোনা যায় পারাবতের কল-কূজন। ডুমুরের গাছে গাছে ধরেছে সবুজ ফলের গুচ্ছ আঙুরের বন আমোদিত হয়ে উঠল…

বিস্তারিত পড়ুন... অভাবি সংসার-০২
Posted in অনুকাব্য

অভাবি সংসার-০১

প্রিয়তমা নিপা পারভীন, তোমার আমার সংসার কোন এক পাহাড়ের চূড়ায় হতো। প্রতিটি রাতে তোমাকে নিয়ে জোসনার আলোতে নিয়ে বসতাম। জানি খুবই অভাবি সংসার হতো। পেতে না আধুনিকতার ছোয়া তবে প্রতিরাতে তোমাকে চাঁদ দেখাতাম। কারন চাঁদের আলোতে তোমার মায়াবী চোখে আমি খুন হতাম আবার জীবিত হতাম। তোমার হাটুতে মাথা রেখে গুন…

বিস্তারিত পড়ুন... অভাবি সংসার-০১
Posted in অনুকাব্য

-তোমাকে ভালোবেসে নাস্তিক হয়েছি-

তোমাকে ভালোবেসে নাস্তিক হয়েছি তোমাকে ভালোবেসে ঈশ্বরের স্হানে তোমায় বসিয়েছি তোমাকে ভালোবেসে ৩২৮৫দিন তোমার পায়ে চুমু দিয়ে দিন শুরু করেছি তোমাকে ভালোবেসে ঘর-সংসার ছেড়েছি তোমাকে ভালোবেসে কোটিপতির হবার স্বপ্ন ছেড়েছি তোমাকে ভালোবেসে নিজের সকালের নাস্তায় টাকায় সেভ করেছি। তোমাকে ভালোবেসে পুরনো বন্ধু-বান্ধব সব ছেড়েছি তোমাকে ভালোবেসে নতুন বন্ধু তৈরী করেনি…

বিস্তারিত পড়ুন... -তোমাকে ভালোবেসে নাস্তিক হয়েছি-
Posted in অনুকাব্য

-প্রশ্নের সম্মুখীন-

কেমন আছেন? – এইতো আছি। কোথায় থাকেন? – কাছাকাছি। বদলে গেছন? – সবাই বলে। তারপর সব ? – যাচ্ছে চলে। ছেলে আছে? – দুটো ছেলে। মেয়ে আছে? -একটি মেয়ে। কোথায় এখন? – ঘুমালো খেয়ে। নাম কি ওর? – মেঘলা ডাকি,মাঝে মাঝে নিপা বলে ডাকি। -ভালোবসেন কাউকে, নাম কি? -অসম্ভব,নাম বললে…

বিস্তারিত পড়ুন... -প্রশ্নের সম্মুখীন-
Posted in অনুকাব্য

-নিপা পারভীন তুমি কি জানো-

সৌন্দর্য কাকে বলে এর সংজ্ঞা বহুজন বহুভাবে দিয়েছেন, আমার কাছে সৌন্দর্যের সংজ্ঞা বড্ড সহজ, সৌন্দর্য মানেই তুমি, জানুক সকলে। হ্যাঁ, আমি গলা ফাটিয়ে বলি সবসময়, বজ্রপাতের মতন উচ্চ স্বরে, তুমিই পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ সুন্দরী নারী। তোমার উরুতে সৌন্দর্য বিশ্রাম নেয়, তুমি যখন হেঁটে যাও অথবা তোমার বিশাল বহুল গাড়ি থেকে নামো…

বিস্তারিত পড়ুন... -নিপা পারভীন তুমি কি জানো-