Posted in অনুগল্প

পলাশ

মাঠে ধারে পলাশ বৃথাই ফুটে আছে। সন্ধ্যের মুখে এখানে প্রায়ই পাঁচ সাত জনের আড্ডা বসে। হুল্লোড় খিস্তি খাস্তা চলে। ডাল ভাঙে। কিছু করতে পারে না। আজ একটু আগে আর্তনাদ, শীৎকার, পাশবিক ঘটে গেল। পাশে বর্ষা আসার মুখে কচি কচি পাট খেতের পাট গাছ লণ্ডভণ্ড। কাদায় মাখামাখি মেয়েটা গড়িয়ে পড়া রক্তের…

বিস্তারিত পড়ুন... পলাশ
Posted in অনুগল্প

মন কাড়া

১লা বৈশাখের সকাল। প্রতিবছরের মতো এবারও সুব্রত আর পৃথা এসেছে মন্দিরে পুজো দিতে। বছরের প্রথম দিনটিতে মায়ের কাছে প্রার্থনা জানিয়ে পুজো না দিলে মনটা ভালো লাগেনা। আজ মন্দিরে বেশ ভীড়। হঠাৎ পৃথার আঁচলে টান পড়লো। চমকে পিছন ফিরে তাকালো সে। দেখে পাঁচ ছ বছরের একটা মেয়ে। একা। পৃথা জিজ্ঞেস করল…

বিস্তারিত পড়ুন... মন কাড়া
Posted in কবিতা

ভরা থাক

অন্তরসারশূন্য হয় না আধার কিছু না কিছু গুণানুপাতে অস্তিত্ব ভরা থাকে পাঁজরের ভেতর যাত্রায় মহীমা সজ্জা দূর থেকে চেনা জানা পথিক সম্রাট ভেবেছিল কিছু হবে না যা হয়েছে তাতেও দূরদর্শী সমগ্রের মোহ ভোরে সবাই মিলে কত সূর্য।

বিস্তারিত পড়ুন... ভরা থাক
Posted in অনুগল্প

রূপের আলেয়া

বাস থেকে নেমেই হঠাৎ দেখা নেহার সঙ্গে। মুখ মেলাতে কিছুটা সময় নিলাম। বললাম – তুই এখানে? নেহা একটু মুছকি হাসল। বলল – হ্যাঁ, এখানে। বালি পুকুরের পাশে আমাদের ফ্ল্যাট। সেই একই রকম সাজগোজহীন কেয়ারলেস তবে স্টেডি। বললাম – আমি নন্দীপাড়ার ভেতরে থাকি। ছেলে এগিয়ে গেছে পরে কথা হবে। নেহা হাত…

বিস্তারিত পড়ুন... রূপের আলেয়া