সমাজতন্ত্র!

Posted in অনুগল্প

জয়া আর রুবেলকে একসাথে পাট ক্ষেতের মধ্য দেখা গেছে। কারো বুঝতে আর বাকি রইল না মোদ্দা ঘটনা কি! প্রেমের টানে দু-একটা চুমা চামা খাইতে বর্ষাকালে গ্রাম গঞ্জে পাট ক্ষেতের মতো উত্তম যায়গা দ্বিতীয়টি নেই। এমন ঘটনা গ্রামে যে এই প্রথম তাও না। মাঝেসাঝে এমন ঘটনা দু একটা হয়। শহরে ধরুন…

বিস্তারিত পড়ুন...

অদ্ভুত গাঁধার পিঠে চলছে স্বদেশ

Posted in অনুগল্প সমসাময়িক সাহিত্য

অদ্ভুত গাধার পিঠে চলছে স্বদেশ! সবগুলো রাজ্য অতি ক্ষুদ্র ভাইরাসের অাক্রমণে দিশেহারা। খাম্বাজ, মুর্শিদাবাদে ইতিমধ্যে হাজার হাজার মানুষ মারা যাচ্ছে! এই অবস্থা দেখে কৃষ্ণনগরের রাজা মন্ত্রীকে ডেকে বললেন, ওহে মন্ত্রী মশাই এখন অামাদের কি করা উচিত? এই ভাইরাস যদি অামাদের রাজ্যে প্রবেশ করে তবে তো মহা সর্বনাশ। মন্ত্রী বলল মহারাজ…

বিস্তারিত পড়ুন...

বিপ্লব !!!-২

Posted in অনুগল্প গল্প ধর্ম-অধর্ম

প্রথম পর্ব এখানেঃ বিপ্লব !!! (১) জুম্মাবারের ঠান্ডা সুন্দর স্নিগ্ধ সকাল। ফজরের সালাত শেষে বাসায় যাচ্ছি। ইদানীং ফজরের সময়ও জামাত শুরুর ঘন্টাখানেক আগেই মসজিদে চলে যেতে হয়। নইলে প্রথম কাতার পাওয়া যায় না। বিপ্লবের পরে মানুষের সালাত আদায়ের হার অনেক বেড়ে গেছে কিন্তু সেই তুলনায় মসজিদের স্পেইস বাড়েনি। হুকুমত মসজিদের…

বিস্তারিত পড়ুন...

অনুগল্প : স্বপ্ন

Posted in অনুগল্প

সবাই ম্বপ্ন দেখে কি না জানি না, তবে অনেকে দেখে, আমিও দেখি। আমার ধারনা সবাই স্বপ্ন দেখতে শেখেনি। স্বপ্ন মানে খুব যে একটা বিরাট কিছু তা নয়। আমার প্রিয়তমা নিপা পারভীন সাথে ছোট একটা সংসার। অল্প একটু জমি, এই কাঠা দশেক হলেই চলে-তাতে একটি ছোট বাংলো প্যাটার্নের একতলা বাড়ি। ইটালিয়ান…

বিস্তারিত পড়ুন...

নীলিমার এক দিন

Posted in অনুগল্প অন্যান্য গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য শোকগাঁথা সাহিত্য

“এই নিমো, তোর কি মনে হয় মরে যাওয়াটা খুব ভয়ের?” – “শোন উজান, আমি তো এখনো বেঁচে আছি, তাই মৃত্যুভয়ের কথা বলতে পারিনা। তবে তোমাকে যে আমার মাঝে মধ্যে ভীষণই ভয় লাগে, সেটা জানো কি?” সরোবরের এই নিঃসঙ্গ প্রাঙ্গনটা যেন হঠাৎই এক ফ্যাকাশে অথচ মেদুর হাসির সঙ্গ পেয়ে চঞ্চল হয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন...

প্রসঙ্গ: “মা” সম্মানিত নারী এবং অতঃপর মায়ের করুন আত্মত্যাগ।

Posted in অধিকার অনুগল্প অন্যান্য ব্যক্তিগত কথাকাব্য

৮ মার্চ ২০২০ বিশ্ব আন্তর্জাতিক নারী দিবস এর মূল প্রতিপাদ্য বিষয়: “সবার জন্য সমতা”। নতুন বিশ্বে কাঙ্খিত আকঙ্খা এখন নারী পুরুষের সমতায়ন। প্রতিটি নারী স্বত্ত্বায় মর্যাদাপূর্ণ মানবাধিকার সুপ্রতিষ্ঠত হোক এবং পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র ও পৃথিবী সামনের পথে এগিয়ে যাক অনেকদূর পর্যন্ত সবার সমান অধিকার কথাটি সমুন্নত রেখে। জীবনটাকে নিয়ে যখন…

বিস্তারিত পড়ুন...

একটি ক্যান্সার দরকার

Posted in অনুগল্প

প্রতিদিন বাসা থেকে কয়েক লিটার তেল নিয়ে বের হই। আজ সবাইকে তেল দিয়ে তাদের মনে ঢুকে যাবো- এমন সংকল্প করেও কাছে যেয়ে আর সেটা পূরণ হয় না। ছেলেবেলা থেকে জীবনের একটা সময় পর্যন্ত নিজেকে খুব মূল্যবান মনে হতো। ফেসভ্যালু বলে একটা কিছু আছে তা হাড়ে হাড়ে টের পেতাম। ছাত্র হিসাবে…

বিস্তারিত পড়ুন...

মোরা আর জনমে হংসমিথুন ছিলাম-*ভালবাসা দিবস*

Posted in অনুগল্প

“সুক্ষদন্তিনী আর তন্বী সে শ্যামা ক্ষীণমধ্যা, নিম্ননাভি, হরিণী নয়না গুরুনিতম্বিনী ব’লে চলে ধীর লয়ে চকিত হরিণীর দৃষ্টি তাহার নয়নে পক্কবিম্বের মতো অধর রক্তিমা যুগল স্তনের ভারে যেন নম্র-নতাপ্রথম যুবতী যেন বিশ্বস্রষ্টার সেথা আছে সে-ই তুলনা যাহার।’’ প্রকৃতিতে টিসিলাগো নামে একটি প্রিয় ফুল সুইডিশদের মাঝে বসন্তের প্রথম আগমনী বার্তা পৌঁছে দেয়,…

বিস্তারিত পড়ুন...

ভালোবাসার চিঠি তোমায় প্রিয় ক্যাপিটালিজম

Posted in অনুগল্প গল্প প্রবন্ধ ব্যক্তিগত কথাকাব্য সমসাময়িক সমাজ ও সভ্যতা সাহিত্য

এক দেশে এক বেশ্যা ছিল আর ছিল তার দালাল। এই বেশ্যাটা কে তার দালাল খুব ভালোবাসতো।চোখে চোখ রেখে কপালে চুমু খেয়ে ভালোবাসি বলা ভালোবাসা এটা নয়। এটা ছিল ফিনান্সিয়াল ভালোবাসা। সবচে বেশি খদ্দের আনতো এই মেয়েটাই কিনা।প্রতিটা কাস্টোমার এর জন্য মেয়েটা কিছু পাইতো। অনুপাতে ২০%-৮০%। মেয়েটা ২০% পাইতো অবশ্যই। ইন্ডাস্ট্রি…

বিস্তারিত পড়ুন...

পদ্মরাগ সদৃশ রমণী

Posted in অনুগল্প

নিপা, পদ্মরাগ সদৃশ রমণী কেবল তোমার জন্যে আমি একটা খয়ের গাছ কিনে আঙিনায় লাগিয়েছি। আমার বাড়ি এসো। এসে গাছ থেকে মেসওয়াকের কাঠিটা নিয়ে যেও। তোমার উপস্থিতি আমাকে নতুন জীবন দেয়। আমি চিঠি লিখে তোমার ঠিকানায় পাঠিয়েছি। চিঠি পড়ে তাড়াতাড়ি বাড়ি চলে এস। তোমার উপস্থিতি আমাকে নতুন জীবন দেয়। যদি জানতে…

বিস্তারিত পড়ুন...