গরিবের প্রতিশোধ স্টাইল (পর্ব-১)

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য শোকগাঁথা

কদিন থেকে ধারালো বড় দুটো দা, টেটা আর কোঁচ নিয়ে সুন্দরবন অভ্যন্তরে ঘুরে বেড়াচ্ছি আমি। বলতে গেলে সারাদিনই বন গহীনে কাটাচ্ছি। ক্ষুধা লাগলে মৌচাক ভেঙে মধু আর যত বুনো ফল আছে তা সংগ্রহ করে খাই। ঘরে ফিরতে প্রায়ই সন্ধ্যা নামে আমার। তাই সন্ধ্যার পর ক্লান্ত শরীরে মাটির হাড়িতে দুটো ফুটিয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন...

বৃক্ষবন

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য শোকগাঁথা

মানুষের শয়তানি, ভন্ডামি, মিথ্যাচার দেখতে দেখতে বিরক্ত আর অতিষ্ঠ হয়ে চলে গেলাম বনমাঝে একদিন। যেখানে কেবল বৃক্ষ সমাজের বসবাস। বৃক্ষরা কোন ভন্ডামি, মিথ্যাচার জানেনা। তাই ফলফলাদি খেয়ে ওদের মাঝে বসবাস করতে থাকলাম একাকি। এক গভীর রাতে এক ভাল ভুতের সাথে দেখা। বনবাসের কারণ খুলে বললাম ভুতকে। সম্ভবত তার মায়া হলো…

বিস্তারিত পড়ুন...

চলার পথের গল্পমালা : সুকাইক

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য স্যাটায়ার

আমি তখন জেদ্দা শহরে থাকতাম। চীন, তাইওয়ান, সিঙ্গাপুরের সাথে ভাল ব্যবসা ছিল আমার! আমার ভগ্নিপতি থাকতেন সুকাইক নামে একটা গ্রামে। যে এলাকায় কোন বিদ্যুৎ বা পানির ব্যবস্থা ছিলনা। গ্রাম্য ঐ জনপদে ৮০/৯০টা বেদুইনদের সেকেলে ঘর ছিল। তারা সবাই ওয়াদি রিমের প্রাকৃতিক পানি দ্বারা কৃষিকাজ করতো। আর তাদের জনপদ ছিল “আল…

বিস্তারিত পড়ুন...

গল্প: মুম্মিতার দেহফ্রেন্ড

Posted in গল্প

  গল্প: মুম্মিতার দেহফ্রেন্ড সাইয়িদ রফিকুল হক সোহানী মায়ের সঙ্গে আজ বিকালে শপিং করতে যাচ্ছিলো নিউ মার্কেটে। ওরা মার্কেটের দুই-নাম্বার গেইট দিয়ে ভিতরে ঢুকছিল। এমন সময় সোহানী দেখে ফেললো মুম্মিতা মিম্মাকে। সেও হয়তো শপিং শেষ করে এই গেইট দিয়েই বাইরে বের হচ্ছিলো। কিন্তু সোহানী তাকে এই ভিড়ের মধ্যেও দেখে ফেলেছে।…

বিস্তারিত পড়ুন...

ফেসবুক প্রেম ও বিয়ে

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য শোকগাঁথা

ফ্রান্সে থাকি আমি প্রায় দুবছর যাবত। এর আগে জার্মানীতে ছিলাম পাঁচ বছর। প্রায় সাত বছর আগে আন্ডারগ্রাজুয়েট প্রোগ্রামে জার্মানীর হেইডেলবার্গ ভার্সিটিতে পড়ালেখা করতে আসি আমি। গ্রাজুয়েশন শেষ করে আর ঢাকা ফিরে যাইনি। চলে এসেছি প্যারিসে। এখানে যদিও এখনো নাগরিকত্ব পাইনি আমি কিন্তু ‘পিআর’ হয়েছে আমার। সম্ভবত এ বছরই পেয়ে যাবো…

বিস্তারিত পড়ুন...

ভর্তি এবং মা!

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য শোকগাঁথা

আমার মায়ের প্রথম সন্তান তথা আমার বড়বোন যখন স্কুলে ভর্তি হতে গেলো, তখন স্কুলের হেডমাস্টার থেকে শুরু করে পরিচিত সকল মাস্টারগণ বিস্মিত হয়ে মার কাছে জানতে চাইলেন – “মেয়েকে স্কুলে ভর্তি করতে চাইছেন কেন? অন্য কোন বাড়ির কোন মেয়েকে কি কেউ স্কুলে পাঠায় এখানে”? – অন্যে পাঠায় না বলে কি…

বিস্তারিত পড়ুন...

বৃটেন, রেবেকা ও কৃষাণ কিসসা (পর্ব-২) শেষ পর্ব

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য ভ্রমণ কাহিনী স্যাটায়ার

বাবা আমার সাথে কথা বলেননা অনেকদিন হলো। কোন বিশেষ দরকার হলে মায়ের মাধ্যমে বলেন। ঘরে তেমন কোন কাজও করিনা। প্রথমত বাড়ির পাশের প্রাইমারি স্কুলটিতে সকাল দশটার দিকে একটা ভাষাভিত্তিক ক্লাস নেই। যে স্কুলের হেডটিচার আবার আমার মায়ের পেটের আপন বোন। আর মাঝে মাঝে আমার পুরনো হাইস্কুলে দুয়েকটি সাহিত্য বা ভাষার…

বিস্তারিত পড়ুন...

বৃটেন, রেবেকা ও কৃষাণ কিসসা (পর্ব-১)

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য ভ্রমণ কাহিনী স্যাটায়ার

আজ বাবার সাথে আবার মন কষাকষি হলো আমার। কিছু টাকা চেয়েছিলাম তার কাছে কিন্তু তিনি এক পয়সাও দেবেন না আমাকে! মেজাজ গরম করে বললেন – আমাকে না দিয়ে টাকা জলে ফেলে দেবেন তিনি কিন্তু আমার মত অকম্মা গাধার পেছনে আর পাই পয়সাও খরচ করতে রাজি নন তিনি। অন্যদিনের মত আজও…

বিস্তারিত পড়ুন...

বল্টুর মহাকাশ যাত্রা [পর্ব : ৯] শেষ পর্ব

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য ভ্রমণ কাহিনী স্যাটায়ার

বল্টুর মহাকাশ যাত্রা [পর্ব : ৯] শেষ পর্ব : সব শুনে খুব মন খারাপ করলো পরী ফ্রিয়া। যদিও এটা পরীদেরই আবাসস্থল। কিন্তু মাকে কথা দিয়েছে এসেছে সে, ফিরে আসবে আবার। আমিও পৃথিবীকে খুব ভালবাসি। বিশেষ করে বাঙালির মাঝে বসবাস করতে চাই আমি। পৃথিবী থেকে কোটি কোটি ট্রিলিয়ন কিমি দূরের গ্লিজ…

বিস্তারিত পড়ুন...

বল্টুর মহাকাশ যাত্রা [পর্ব : ৮]

Posted in গল্প ব্যক্তিগত কথাকাব্য ভ্রমণ কাহিনী স্যাটায়ার

অনন্ত চলার পথে আমরা এগিয়ে এলাম আমাদের পৃথিবীর অন্তত ৫০,০০০ আলোক বর্ষ দূরত্বে। মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির গ্যালাবুয়ার ক্লাস্টার, নরমা আর্ম, স্কাটা ক্রাক্স আর্ম, স্যাগিটুরাস আর্ম, অরিয়ন আর্ম, পার্সুয়াস আর্ম, গিসনাস আর্ম, ক্লোবালুর ক্লাস্টার নক্ষত্রপুঞ্জ এবং আমাদের সৌর মন্ডলীর কাছাকাছি। এ অঞ্চলে উজ্জ্বল সক্রিয় তারার সংখ্যা অন্তত ২০০-বিলিয়ন। যার গ্রহরাজি থাকতে পারে…

বিস্তারিত পড়ুন...