Posted in জাতীয় সম্পদ

কে এই ফরেস্ট কুকসন?

ড. ফরেস্ট ই. কুকসন। বনানীর ২৫ নং রোডে অবস্থিত রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার নামক প্রতিষ্ঠানের পরিচালক তিনি। ১৯৬১ সালে জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে পিএইচডি ডিগ্রি নেন। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে শিক্ষকতাও করেন। বাংলাদেশে ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাস করছেন এই মার্কিনি। পারিবারিক নানা ঝামেলার কারণেই নিজ দেশ ছেড়ে এত দূরে এসে…

বিস্তারিত পড়ুন... কে এই ফরেস্ট কুকসন?
Posted in জাতীয় সম্পদ

সাবধান! উন্মুক্ত খনির প্রস্তুতি চলছে!

কয়লা উত্তোলনে উন্মুক্ত খনি না করার অঙ্গীকার থাকলেও গোপনে উন্মুক্ত খননের সব প্রস্তুতি চলছে। দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ীতে ২০০৬ সালের ২৬ আগস্ট উন্মুক্ত খনির বিরুদ্ধে গণঅভ্যুত্থান ঘটেছিল। বিএনপির নেতৃত্বাধীন তৎকালীন জোট সরকার সেই অভ্যুত্থান দমন করতে গিয়ে তিনজনকে হত্যা করে। ব্যাপক দমন নিপীড়ন চালিয়েও অবশেষে আন্দোলনের মুখে জোট সরকার পিছু হটতে…

বিস্তারিত পড়ুন... সাবধান! উন্মুক্ত খনির প্রস্তুতি চলছে!
Posted in জাতীয় সম্পদ

তালপট্টিতে ১০০ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস এবং একটি জামাত-বিএনপি-পিনাকীয় প্রোপ্যাগান্ডা

তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির নিবেদিত সংগঠক আরিফ বুলবুল একটি স্টাটাস দিয়েছেন তার ফেসবুকে। সেটা হলো ‘দক্ষিণ তালপট্টি তো পানিতে তলিয়ে গেছে, ওটা নাই বলে যারা আনন্দ করছেন, তাঁদের একটা সুসংবাদ দেই। ওই জায়গায় ভারত ২০০৬ সালে ১০০ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের মজুত পেয়েছে।’ স্টাটাসটি তিনি ব্লগার পিনাকি…

বিস্তারিত পড়ুন... তালপট্টিতে ১০০ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস এবং একটি জামাত-বিএনপি-পিনাকীয় প্রোপ্যাগান্ডা
Posted in জাতীয় সম্পদ

বিদ্যুতের দাম বাড়ে বিদেশি চাপে!

বিদ্যুতের দাম আবারো বাড়তে যাচ্ছে। গেল মেয়াদের আওয়ামী লীগ সরকার যে রেকর্ড ঘটিয়েছিল এবার বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির সেই ঘোড়দৌড় তারা বেশ ভালোভাবেই শুরু করতে যাচ্ছে। সরকারের ক্ষমতাগ্রহণের দুই মাস পেরোতে না পেরোতেই বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি ঘটতে যাচ্ছে। কাগজপত্র, আইন কানুন, নীতিমালা অনুযায়ী বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি হবে অনেকগুলো সূচক বিবেচনা করে। কিন্তু নীতিমালা নথিবদ্ধ।…

বিস্তারিত পড়ুন... বিদ্যুতের দাম বাড়ে বিদেশি চাপে!
Posted in জাতীয় সম্পদ ভ্রমণ কাহিনী সংস্কৃতি ও শিল্পকলা

স্বাধীনতা আন্দোলনের সূত্রপাত এবং ফেব্রুয়ারী……

বিস্তারিত পড়ুন... স্বাধীনতা আন্দোলনের সূত্রপাত এবং ফেব্রুয়ারী……
Posted in জাতীয় সম্পদ

শুরু হলো ঢাকা-রামপাল লংমার্চ, জয় সুন্দরবন

সেইবার বলা হইছিলো যে দেশ গ্যাসের উপরে ভাসতাছে। এতো গ্যাস দিয়া কি হবে। তার চেয়ে বিবিয়ানার অতিরিক্ত গ্যাস ভারতে রপ্তানি করে দেশের দুই চাইর পয়সা ইনকাম করা হউক। কিন্তু অনেকেই প্রতিবাদ করলেন। আন্দোলনে নেতৃত্ব দিল তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি। বিবিয়ানা লংমার্চ সেইসময় ভারতে রপ্তানির…

বিস্তারিত পড়ুন... শুরু হলো ঢাকা-রামপাল লংমার্চ, জয় সুন্দরবন
Posted in জাতীয় সম্পদ রাজনীতি

জনবিরোধী সব সিদ্ধান্তের বেলায় ‘হাকিম নড়ে, হুকুম নড়ে না’

বর্তমান সরকার মেয়াদের শেষ প্রান্তে আছে। চার বছর প্রায় শেষ। দীর্ঘ এই সময়ে সরকারের অনেক কর্মকাণ্ড প্রমাণ করে, যত বিরোধিতাই আসুক কিছু সিদ্ধান্ত থেকে তারা সরে আসেনি। যা করতে চেয়েছে যে কোনোভাবে তা সম্পন্ন করেছে। আরো লক্ষণীয় অন্য সব ক্ষেত্রে সরকার পূর্ববর্তী সরকারের বিরোধিতা করলেও কয়লা, বিদ্যুৎ, গ্যাস, প্রতিটি ক্ষেত্রেই…

বিস্তারিত পড়ুন... জনবিরোধী সব সিদ্ধান্তের বেলায় ‘হাকিম নড়ে, হুকুম নড়ে না’
Posted in জাতীয় সম্পদ

রেন্টালের সাতকাহন

রেন্টাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো আমাদের অর্থনীতিকে ধ্বংস করছে। এই কথা অনেকদিন থেকেই আমরা বলে আসছি। এই কেন্দ্রগুলোর স্থাপন ব্যয় বেশি। এগুলো থেকে বিদ্যুৎ কেনা হয় চড়া দামে। এগুলোতে ভর্তুকি মূল্যে তেল সরবরাহ করা হয়। যন্ত্রপাতি পুরনো হওয়ায় এই কেন্দ্রগুলো তেল টানে বেশি। ফলে ব্যয় বাড়তেই থাকে। এই কেন্দ্রগুলো করতে কোনো টেন্ডার…

বিস্তারিত পড়ুন... রেন্টালের সাতকাহন
Posted in জাতীয় সম্পদ সাক্ষাৎকার

‘সুন্দরবনে কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্র হতে দেব না’- প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ

আনিস রায়হান : রামপাল প্রকল্প এত বিরোধিতা সত্ত্বেও সরকার চালিয়ে যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের না সত্ত্বেও সরকারের এত আগ্রহ কেন? প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ : প্রধানমন্ত্রী যেভাবে হোক বিদ্যুৎ চান। তিনি মনে করেন সুন্দরবনে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র হলে বনের কোনো ক্ষতি হবে না। তার মনে করা না করার ওপরেই কাজ চলছে। বিশেষজ্ঞদের…

বিস্তারিত পড়ুন... ‘সুন্দরবনে কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্র হতে দেব না’- প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ
Posted in জাতীয় সম্পদ

সুন্দরবনকে ভুলে যাবেন না

গত ২০ এপ্রিল বিদ্যুৎ ভবনে বসে সরকার চূড়ান্ত করে ফেলল সুন্দরবন ধ্বংসের রূপরেখা। সাধারণ জনগণের বিরোধিতা, পরিবেশবিদদের আপত্তি এবং আর্থিকভাবে দেশের ক্ষতির আশঙ্কাকে এড়িয়ে এইদিন সরকার তিনটি চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে সুন্দরবন ধ্বংসের সব আয়োজন শেষ করল। আমরা এর বিরোধিতা করে মুখ খুলতে না খুলতে জাতীয় জীবনে নেমে এলো ভয়ঙ্কর অশনি।…

বিস্তারিত পড়ুন... সুন্দরবনকে ভুলে যাবেন না