Posted in অন্যান্য

ধর্ম মানুষের বানানো প্রপাগান্ডা।

ইসলাম বাল্য বিবাহ, বহুবিবাহ, নারী খৎনা, দাসী প্রথা কোন কুপ্রথা দূরীকরনে এগিয়ে আসেনি। কিন্তু পালক পূত্রবধুকে নিজ পূত্রবধু মনে করা এমন কুপ্রথা যার জন্যে ইসলাম এতোটা এগিয়ে এলো। এখানে কয়েকটি প্রশ্ন থেকে যায়? হাদিস থেকে প্রমানিত হয়ে জায়েদা রাঃ এর অতিরিক্ত রূপ সৌন্দর্য ছিল যা মুহাম্মদ সাঃ এর মন ঘুরিয়ে…

বিস্তারিত পড়ুন... ধর্ম মানুষের বানানো প্রপাগান্ডা।
Posted in অন্যান্য

ঈশ্বর বলতে কিছু নাই।

আদিম যুগ থেকে উঠে মানুষ যখন সভ্যতার দিকে এসে সমাজ পেতে বসবাস শুরু করেছিলো, তখনি মানুষের মনে ঈশ্বর জন্ম নিয়েছিলো। ঈশ্বরের ধারণা করেছিলো কিছুসংখ্যক মুর্খ মানুষরা। কিন্তু এই ঈশ্বরকে মুখোশ হিসাবে ব্যবহার করেছিলো কিছুসংখ্যক চতুর মানুষরা। আর এই চতুর মানুষগুলো ঈশ্বর কে মুখোশ হিসাবে ব্যবহার করে, কিছুগুলো অদ্ভুত নীতি নিয়ম…

বিস্তারিত পড়ুন... ঈশ্বর বলতে কিছু নাই।
Posted in অন্যান্য

নবী মুহাম্মদ ঘর জামাই ছিল।

ইসলামের নবী মুহাম্মদের ইজ্জৎ পাংচার,নবী মুহাম্মদ ঘর জামাই ছিলেন।তার প্রথম স্ত্রী খাদিজা একজন ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ছিলেন।মুহাম্মাদের সাহস ছিলনা যে সে তার বর্তমানে আরেকটি বিবাহ করে। খাদিজার মৃত্যুর পর মুহাম্মাদ একের পর এক বিবাহ করে যান। নিজের হাদিসটি মন দিয়ে পড়ুন- পাবলিশারঃ ইসলামিক ফাউন্ডেশন গ্রন্থঃ সূনান নাসাঈ (ইফাঃ) অধ্যায়ঃ ৩৭/ স্ত্রীর…

বিস্তারিত পড়ুন... নবী মুহাম্মদ ঘর জামাই ছিল।
Posted in অন্যান্য

মানুষ যতো উন্নত হচ্ছে ততোই ইসলামীক শরীয়া আইন থেকে সরে আসছে।

শরীয়া আইন মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে পঞ্চম শতাব্দীর দিকে প্রচলিত থাকা বিভিন্ন অপরাধের জন্য যে শাস্তির ব্যবস্থা ছিল সেগুলোর কিছুটা পরিবর্তিত রূপ মাত্র।মানব সভ্যতা ক্রমে ক্রমে অগ্রসর হতে থাকে, সময়ের সাথে সাথে নানা রকম প্রযুক্তিগত উন্নতি হতে থাকে। সেই সাথে সমাজের সমস্যার ধরনগুলো বদলে যেতে থাকে। নতুন সমস্যার আগমনে যুগপোযোগী আইন প্রনয়ন…

বিস্তারিত পড়ুন... মানুষ যতো উন্নত হচ্ছে ততোই ইসলামীক শরীয়া আইন থেকে সরে আসছে।
Posted in অন্যান্য

রাষ্ট্রের কোন ধর্ম থাকবে না সেক্যুলার সমাজ/রাষ্ট্রই আমাদের লক্ষ্য।

রাষ্ট্রের কোন ধর্ম থাকবে না সেক্যুলার সমাজ/রাষ্ট্রই আমাদের লক্ষ্য, যেখানে ধর্ম বা ধর্মহীনতা নাগরিকের ব্যক্তিগত ব্যাপার মাত্র। রাষ্ট্রের কোন ধর্ম থাকে না, এবং সেখানে রাষ্ট্র বৈষম্যমূলক আচরণ করে না কারো প্রতি। ধর্ম হবে মানুষের ব্যক্তিগত, এবং গোপনীয়। অস্ট্রেলিয়াতে প্রায় অর্ধেক মানুষ নাস্তিক, এইখানে কেউ কোনদিন নিজেকে নাস্তিক পরিচয় দিয়েছে বলে…

বিস্তারিত পড়ুন... রাষ্ট্রের কোন ধর্ম থাকবে না সেক্যুলার সমাজ/রাষ্ট্রই আমাদের লক্ষ্য।
Posted in অন্যান্য

ধর্মের জন্য প্রতিদিন মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে।

ধর্ম ধর্ম করে প্রিতিদিন মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে বিনা কারণে । সৃষ্টির সেরা মানুষ কবে নিজে প্রথমে সৎ হবে অন্যকে সৎ হবার বলার আগে?অনেকে ইসলামকে সিংহাসনের উপরে বসিয়ে পৃথিবীর সর্ব শ্রেষ্ঠ ধর্ম বলে রায় দিচ্ছেন। কিন্তু এই ধর্মের ছায়াতলেই ঘটে যাচ্ছে অসংখ্যা ব্যাভিচার সে দিকে কারো খেয়াল নেই; নেই কারো মাথা…

বিস্তারিত পড়ুন... ধর্মের জন্য প্রতিদিন মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে।
Posted in অন্যান্য

‘ ইসলাম ধর্ম কখনো শান্তির ধর্ম ছিলোনা এবং কোরান বিজ্ঞান বিরোধী প্রচীন গল্পের বই।,

ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে কিছু বলিলে, আমাদেরকে মুসলিম বিদ্ধেষী হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়। কিন্তু যারা নিজেদের ভালো মুসলিম বলে দাবী করেন, তারা কখনো জঙ্গী উগ্র মুসলিমদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে না। বরং সংখ্যা গরিষ্ঠ মৌনতা অবলম্বন করে। আজ সারা পৃথিবীতে সব জায়গায়,সব মানুষ একটি বিষয়ে একমত যে ইসলাম ধর্মের মতো উগ্রতা ও…

বিস্তারিত পড়ুন... ‘ ইসলাম ধর্ম কখনো শান্তির ধর্ম ছিলোনা এবং কোরান বিজ্ঞান বিরোধী প্রচীন গল্পের বই।,
Posted in অন্যান্য

ইসলাম কোন সত্য ধর্ম নয় । ইসলাম কাল্পনিক ধর্ম ।

ইসলাম কোন সত্য ধর্ম নয় । ইসলাম কাল্পনিক ধর্ম । 🧿 “মুমিন ” আপনি ১৪০০ বছর আগে লেখা কুরান ও ১৩০০-১২০০ বছর আগে লেখা হাদিসে বিশ্বাসি । উড়ন্ত ঘোড়া , ফেরেস্তা , জিবারাইল , আজ্রাইল , হারুত মারুত , মুনকার ও নাকির , জান্নাত জাহান্নাম , আস সিরাত ব্রিজ ,…

বিস্তারিত পড়ুন... ইসলাম কোন সত্য ধর্ম নয় । ইসলাম কাল্পনিক ধর্ম ।
Posted in অন্যান্য

ধর্ম মানুষ ভয়ে মানে।

ধর্ম মানুষ ভয়ে মানে,ভালবেশে মানে খুব কম।বেহেস্তের লোভ,আর দোজখের ভয় যদি না থাকতো তাহলে মানুষ ধর্ম বিশ্বাস করত না। অধিকাংশ ধার্মিক “গড ফিয়ারিং পিপল্”গড লাভিং পিপল্ নয়”। আব্রাহামিক ধর্মগুলো তো “ঈশ্বরকে ভয় কর” বলেই কথা শুরু করে। তাহলে অন্যধর্ম গুলোতে কি সবাই সাধু।মোটেই না। ধরেন সনাতন ধর্ম,অসংখ্য মানুষ পরীক্ষায় পাশ…

বিস্তারিত পড়ুন... ধর্ম মানুষ ভয়ে মানে।
Posted in অন্যান্য

আফগানিস্তানে শরিয়া আইন।

আফগানিস্তানের বিভিন্ন জায়গা তালেবানরা দখল করে ফেলেছে ইতিমধ্যে।খুব শীগ্রই আফগানিস্তানে তালেবানরা শরিয়া আইন প্রতিষ্ঠিা করবে। শরিয়াহ আইন প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই জোরপূর্বক সবাইকে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তে বাধ্য করবে, সমস্ত স্কুল-কলেজ ধীরে ধীরে বন্ধ হয়ে মাদ্রাসায় পরিনত হবে। কেউ চুরি করলে তার হাত কে -টে দিবে,যেনা ব্যভিচার করলে তাকে পাথর নিক্ষেপ…

বিস্তারিত পড়ুন... আফগানিস্তানে শরিয়া আইন।