Posted in কার্টুন ধর্ম-অধর্ম

ডাবল স্ট্যান্ডার্ড!!!

Ishita’s cartoon and animations  

বিস্তারিত পড়ুন... ডাবল স্ট্যান্ডার্ড!!!
Posted in মুক্তচিন্তা সমসাময়িক

কুরআন ও হাদিস কি মাদ্রাসা হুজুরদের ধর্ষক হয়ে ওঠার কারণ?

পত্রিকা খুললেই খুবই সাধারণ একটি  খবর: মাদ্রাসার ছাত্র/শিক্ষক দ্বারা সহপাঠী/ছাত্র-ছাত্রী বা মহিলা ধর্ষিত। এখন এটা একেবারে মুরি-মুড়কির মতন স্বাভাবিক হয়ে গেছে। প্রশ্ন জাগে যে এত ‘সুন্দর’ ধর্মীয় পরিবেশে, এতো কঠোর যৌনতা-হীন পরিবেশে থেকেও কেন তারা ধর্ষণ করে? ইসলামই একমাত্র ধর্ম যেখানে কঠোরভাবে নারীদেরকে পাবলিক স্পেইস থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। একটি…

বিস্তারিত পড়ুন... কুরআন ও হাদিস কি মাদ্রাসা হুজুরদের ধর্ষক হয়ে ওঠার কারণ?
Posted in ধর্ম-অধর্ম

ইসলাম পিছিয়ে থাকা লোকেদের ধারণ করতে পারেনি, কব্জা করে পূঁজিপতিদের হাতে তুলে দিয়েছে বরং

১ একটা প্রশ্ন ঘুরেফিরেই আসে এবং আসতে বাধ্য- ইসলাম কি আসলে পিছিয়ে থাকা জাতিগোষ্ঠীকে ধারণ করেছে? এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগে বুঝতে হবে যে পৃথিবীর পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীর মধ্যেই ইসলামের প্রচার ও প্রসার বেশি -এ থেকে মনে হতে পারে যে ইসলাম বুঝি পিছিয়ে থাকা জনগোষ্ঠীকে মুক্তির দিশা দেয়। সহজ উত্তর…

বিস্তারিত পড়ুন... ইসলাম পিছিয়ে থাকা লোকেদের ধারণ করতে পারেনি, কব্জা করে পূঁজিপতিদের হাতে তুলে দিয়েছে বরং
Posted in ধর্ম-অধর্ম সমালোচনা

কুরআন এবং ভ্রূণের বিকাশ: আলাকাহ পর্যায়

আলাকাহ পর্যায় কুরআনের ভ্রূণ বিকাশের বর্ণনা থেকে জানা যায়, নুতফা পর্যায়ের পর আসে আলাকাহ পর্যায়। কুরআন বলে, নুতফা (বীর্য) আলাকায় পরিণত হয়। কুরআনে ‘আলাকাহ’ শব্দটি দ্বারা ‘জমাট রক্ত’ বোঝানো হয়েছে। একটি ভ্রূণকে কখনোই ‘জমাট রক্ত’ বলা যায় না। একটি ভ্রূণ তার বিকাশের কোনো পর্যায়েই জমাট রক্তে পরিণত হয় না। গত…

বিস্তারিত পড়ুন... কুরআন এবং ভ্রূণের বিকাশ: আলাকাহ পর্যায়
Posted in ধর্ম-অধর্ম সমালোচনা

কুরআন এবং ভ্রূণের বিকাশ: নুতফা পর্যায়

ভূমিকা মুসলিমদের বিশ্বাস অনুযায়ী, তাদের ধর্মগ্রন্থ ‘কুরআন’ স্বয়ং তাদের ঈশ্বর আল্লাহর বাণী এবং সেই কারণে তাতে কোনোরূপ ভুল থাকতে পারেনা। তারা বিশ্বাস করেন, কুরআন পুরোপুরি নির্ভুল একটি গ্রন্থ এবং তাতে কোনোরূপ কোনো সমস্যা নেই। মুসলিমরা মনে করেন, কুরআনে ভুল আছে বলে মানুষ যা বলে থাকেন তা আসলে তাদের বুঝার ভুল।…

বিস্তারিত পড়ুন... কুরআন এবং ভ্রূণের বিকাশ: নুতফা পর্যায়
Posted in ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা সমালোচনা

ইসলাম এবং ধর্মত্যাগ

ধরা যাক, আপনার পারিবারিক সূত্রে পাওয়া ধর্মটির নাম ইসলাম নয়, আপনার পারিবারিক সূত্রে পাওয়া ধর্মের নাম হচ্ছে ‘পিসলাম’। আপনি যেই রাষ্ট্রে বাস করেন সেই রাষ্ট্রে ধর্মনিরপেক্ষতার কোনো অস্তিত্ব নেই, সেই রাষ্ট্র চলে ‘পিসলাম’ ধর্মের পিসলামি আইনে। আপনাদের রাষ্ট্রে ভিন্ন ধর্মের মানুষ তেমন বাস করেনা বললেই চলে, যারাও বাস করে তাদেরকে…

বিস্তারিত পড়ুন... ইসলাম এবং ধর্মত্যাগ
Posted in অধিকার ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

নাস্তিক্যবাদের উদ্দেশ্য নির্দিষ্ট কোন ধর্মকে ছোট করা নয় (৮ম পর্ব)

বাংলাদেশে মৌলবাদের জন্ম ও বিকাশের ইতিহাস এবং রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট। ১৯৭১ সালে মৌলবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে প্রায় ৩০ লক্ষ প্রাণ ও ২ লক্ষ নারীর সম্ভ্রমের বিনিময়ে পাকিস্তান নামক একটি ধর্মীয় জাতীয়তাবাদের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে জাতীয়তাবাদের আন্দোলন করে জন্ম হয়েছে আমাদের এই মাতৃভুমি বাংলাদেশের। শুরুতে বাংলাদেশের সংবিধানে তাই ধর্ম নিরাপেক্ষতা,…

বিস্তারিত পড়ুন... নাস্তিক্যবাদের উদ্দেশ্য নির্দিষ্ট কোন ধর্মকে ছোট করা নয় (৮ম পর্ব)
Posted in অধিকার ধর্ম-অধর্ম মুক্তচিন্তা

নাস্তিক্যবাদের উদ্দেশ্য নির্দিষ্ট কোন ধর্মকে ছোট করা নয় (৯ম পর্ব)

বাংলাদেশে মৌলবাদের জন্ম ও বিকাশের ইতিহাস এবং রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট। বাংলাদেশের ক্ষমতায় হোসেন মুহাম্মদ এরশাদ আসার পরেই বাংলাদেশে যে কাজটি সবার আগে করেছিলো তা হচ্ছে তার সমস্ত অপকর্মের ধর্মীও বৈধতা দিতে হবে এই শর্তে বাংলাদেশের মোল্লা রাজনীতিকে একেবারেই লাইসেন্স দিয়ে দিলো। ধর্মনিরাপেক্ষ বাংলাদেশকে ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্রে রুপান্তর করার বৈধতা দিতে বাংলাদেশের সংবিধান…

বিস্তারিত পড়ুন... নাস্তিক্যবাদের উদ্দেশ্য নির্দিষ্ট কোন ধর্মকে ছোট করা নয় (৯ম পর্ব)
Posted in ব্লগ

সহীহ বুখারী কেন মিথ্যাচার (পর্ব ১)

সহী বুখারী হাদিসের সংকলনকারীর আসল নাম হচ্ছে Abū ‘Abd Allāh Muḥammad ibn Ismā‘īl ibn Ibrāhīm ibn al-Mughīrah ibn Bardizbah al-Ju‘fī al-Bukhārī (Arabic: أبو عبد الله محمد بن إسماعيل بن إبراهيم بن المغيرة بن بردزبه الجعفي البخاري‎‎; ১৯ July ৮১০ – 1 September ৮৭০) তার জন্ম হয়েছিল উজবেকিস্তাসনের বুখারাতে নবী মোহাম্মদের…

বিস্তারিত পড়ুন... সহীহ বুখারী কেন মিথ্যাচার (পর্ব ১)
Posted in ধর্ম-অধর্ম সমালোচনা

ধর্ম- মডারেট সংস্করন?

ধর্ম নিয়ে কোন কিছু লিখতে গেলে সবার প্রথমেই শুনতে হয় ‘এত সেন্সিটিভ জিনিস নিয়ে কথা বলা উচিত না। আলোচনা করার বিষয়ের কি অভাব আছে নাকি?’ এই কথাটা বিজ্ঞান নিয়ে আলোচনার সময়ে শুনতে হয় না, সাহিত্য নিয়ে সমালোচনার সময়ে শুনতে হয় না, রাজনীতি, অর্থনীতি, বিনোদন এমনকি মানুষের পার্সোনাল বিষয় নিয়ে ডিসকাশনের…

বিস্তারিত পড়ুন... ধর্ম- মডারেট সংস্করন?